ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম ও বান্দরবানে মৃদু ভূকম্পন অনুভূত হয়েছে। শনিবার (২৭ নভেম্বর) বিকেল ৩টা ৫০ মিনিটে এ কম্পন অনুভূত হয়। মৃদু মাত্রার এই ভূমিকম্পের পর এখনও পর্যন্ত কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

চট্টগ্রামে আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল মিয়ানমার-ভারত সীমান্তে। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৪ দশমিক ২। তবে এখন পর্যন্ত কোথাও কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। মিয়ানমারের চিন রাজ্যের হাখা থেকে ৩৫ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

ভূমিকম্পটির গভীরতা ছিল ৫৩ কিলোমিটার। মাত্র একদিন আগেই বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তীব্র ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। গতকাল ২৬ নভেম্বর ভোর ৫টা ৪৫ মিনিটে ভূমিকম্পটি অনুভূত হয়। তবে ভূমিকম্পে দেশের কোথাও ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, ভোর ৫টা ৪৫ মিনিট ৪১ সেকেন্ডে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। এর মাত্রা ছিল ৫ দশমিক ৮। মাঝারি মাত্রার ওই ভূমিকম্পের কেন্দ্র ছিল ঢাকার আগারগাঁও ভূমিকম্প পরিমাপক কেন্দ্র থেকে ৩৪৭ কিলোমিটার পূর্ব ও দক্ষিণ-পূর্ব দিকে ভারত-মিয়ানমার সীমান্তে।

ভূমিকম্পের মাত্রা ও উৎপত্তিস্থল সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্রের পর্যবেক্ষক সংস্থা ইউএসজিএসের ওয়েবসাইটে জানানো হয়, বাংলাদেশ সময় ভোর ৫টা ৪৫ মিনিট ৪১ সেকেন্ডে ভূমিকম্পটি সৃষ্টি হয়। উৎপত্তিস্থল মিয়ানমারে এর মাত্রা ছিল ৬.১।

ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল মিয়ানমারের হাখা থেকে ২০ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিম ও ভারতের মিজোরামের থেনজল থেকে ৭৩ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে। ভূপৃষ্ঠের ৪২ কিলোমিটার গভীরে এ কম্পনের সৃষ্টি হয়।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...