সরকারি শেয়ারে মূল্য সংশোধন

টানা মূল্য বৃদ্ধির পর সংশোধন চলছে সরকারি মালিকানা কোম্পানিগুলোর শেয়ারে। মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) বেশিরভাগ সরকারি কোম্পানি শেয়ারের দর হারিয়েছে। ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ-উভয় বাজারে ছিল অভিন্ন চিত্র।

লেনদেনের প্রথম দিকে অবশ্য সরকারি কোম্পানিগুলোর শেয়ারের দামে বেশ উর্ধগতি ছিল। দিনের এক পর্যায়ে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারের দর আগের দিনের ক্লোজিং দরকে ছাড়িয়ে গিয়েছিল। তবে ওই ধারা শেষ পর্যন্ত টেকসই হয়নি। ধীরে ধীরে এসব শেয়ারের দাম কমতে থাকে এবং এক পর্যায়ে আগের দিনের দামের চেয়ে নিচে নেমে আসে।

তবে মূল্য সংশোধন হলেও মঙ্গলবারও লেনদেনে সরকারি কোম্পানিগুলোর বেশ আধিপত্য ছিল। এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে শীর্ষ ২০ কোম্পানির মধ্যে ৩টি ছিল সরকারি কোম্পানি। লেনদেনে সবার শীর্ষে ছিল বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন (বিএসসি)।

বেশ কিছুদিন ধরে বাজারে বিএসসির শেয়ারের দাম অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে। এক মাসের কাছাকাছি সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়েছে ১৭৬ শতাংশ। মঙ্গলবার ডিএসইতে শেয়ারটির দাম ১০ টাকা বা প্রায় ৭ শতাংশ বেড়ে ১৩৮ টাকা থেকে ১৪৮ টাকায় উন্নীত হয়েছিল। তবে পরে সেটি কমে ১৩৫ টাকায় নেমে আসে।

ডিএসইতে লেনদেনে ৬ষ্ঠ স্থানে থাকা পাওয়ারগ্রিডের শেয়ারের দাম বেড়ে ৭৩ টাকা ২০ পয়সা থেকে ৭৪ টাকা ৯০ পয়সায় উঠলেও পরে এটি ৭১ টাকা ৪০ পয়সায় নেমে আসে।

লেনদেনে ২০তম অবস্থানে থাকা তিতাস গ্যাসের শেয়ারের দাম সর্বোচ্চ ৪৭ টাকায় উঠে ৪৪ টাকা ১০ পয়সায় নেমে আসে। আগের দিন শেয়ারটির দাম ছিল ৪৫ টাকা ৫০ পয়সা।

এদিন সরকারি কোম্পানিগুলোর মধ্যে আরও দর হারিয়েছে ইস্টার্ন ক্যাবলস, ন্যাশনাল টিউবস, শ্যামপুর সুগার ও ডেসকো। অন্যদিকে রেনউইক যজ্ঞেশ্বর, এনটিসি, জিলবাংলা, যমুনা অয়েল ও মেঘনা পেট্রোলিয়ামের শেয়ারের দাম কিছুটা বেড়েছে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...