অবশেষে সেই সার্জেন্টের মামলা নিলো বনানী থানা

গাড়িচাপায় বিজিবির অবসরপ্রাপ্ত সদস্য মনোরঞ্জন হাজং আহতের ঘটনায় প্রায় দুই সপ্তাহ পর মামলা নিলো বনানী থানা পুলিশ। বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নুরে আজম মিয়া বৃহস্পতিবার (১৬ ডিসেম্বর) মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করেন। মনোরঞ্জন হাজংয়ের মেয়ে মহুয়া হাজং বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

ওসি বলেন, মামলায় অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে। ঘটনার পরই আমরা অভিযোগ পেয়েছি। কিন্তু যাচাই করার প্রয়োজন ছিল। আমরা যাচাই করে মামলা নিয়েছি। আশপাশের সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করেছি। তদন্তের মাধ্যমে বেরিয়ে আসবে, গাড়িটি কে চালাচ্ছিলেন, কীভাবে দুর্ঘটনা ঘটেছে।

সার্জেন্ট মহুয়া হাজং জানান, তার বাবার ডান পায়ে কয়েক দফা অপারেশন করা হয়েছে। একপর্যায়ে ডান পা কেটে ফেলা হয়েছে। তিনি বারডেম হাসপাতালে আছেন।

প্রসঙ্গত, গত ২ ডিসেম্বর রাত সোয়া ২টার দিকে রাজধানীর চেয়ারম্যান বাড়ি সংলগ্ন ইউটার্নের মুখে দুর্ঘটনার শিকার হন মনোরঞ্জন হাজং। যে গাড়ির ধাক্কায় তিনি আহত হন, সেই গাড়িটি এক বিচারপতির ছেলে চালাচ্ছিলেন। ঘটনাস্থল থেকে বিচারপতির ছেলেকে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। গাড়িটিও জব্দ করা হয়। কিন্তু কিছু সময় পরই ছাড়া পেয়ে যান ওই চালক।

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...