ভার্চুয়াল কোর্টে সাড়ে ১৩ হাজার হাজতির জামিন

চলমান লকডাউনের মধ্যে সারা দেশের নিম্ন আদালতে ভার্চুয়াল শুনানি নিয়ে বুধবার (২১ এপ্রিল) ২৮৩১টি আবেদন নিষ্পত্তি করে ১৩৪৯ জনকে জামিন দেওয়া হয়েছে। এর ফলে সর্বমোট সাত কার্যদিবসে ২৩ হাজার ৭৮৪টি মামলায় ভার্চুয়াল শুনানির মাধ্যমে মোট ১৩ হাজার ৬০৭ জন হাজতি জামিন পেয়ে কারামুক্ত হলেন।

আজ বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) সকালে গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের মুখপাত্র ও হাইকোর্ট বিভাগের স্পেশাল অফিসার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান।

তিনি জানান, গত ১২ এপ্রিল থেকে করোনা সংক্রমণ রোধকল্পে পুনরায় দ্বিতীয় দফায় সারাদেশে অধঃস্তন আদালত এবং ট্রাইব্যুনালে শারীরিক উপস্থিতি ব্যতিরেকে ভার্চ্যুয়াল পদ্ধতিতে জামিন ও অতীব জরুরি ফৌজদারি দরখাস্ত শুনানি হচ্ছে।

সাইফুর রহমান জানান, গত ১২ এপ্রিল এক হাজার ৬০৪ জন, ১৩ এপ্রিল তিন হাজার ২৪০ জন, ১৫ এপ্রিল দুই হাজার ৩৬০ জন, ১৮ এপ্রিল এক হাজার ৮৪২ জন, ১৯ এপ্রিল এক হাজার ৬৩৫ জন, ২০ এপ্রিল এক হাজার ৫৭৬ জন ও ২১ এপ্রিল এক হাজার ৩৪৯ জন অভিযুক্ত ব্যক্তি জামিন পেয়ে কারামুক্ত হয়েছেন। মোট সাত কার্যদিবসে ১৩ হাজার ৬০৭ জন হাজতি জামিন পেয়ে কারামুক্ত হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, গত ১১ এপ্রিল সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে। সেখানে বলা হয়েছে- কোভিড-১৯ মহামারির বিস্তার রোধকল্পে ১২ এপ্রিল থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে জামিন ও অতি জরুরি ফৌজদারি দরখাস্তসমূহ নিষ্পত্তি করার উদ্দেশ্যে আদালত ও ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।

এছাড়াও সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতায় প্রত্যেক চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট/চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এক বা একাধিক ম্যাজিস্ট্রেট যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে শারীরিক উপস্থিতিতে দায়িত্বপালন করবেন বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

অর্থসূচক/কেএসআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...