‘খালেদা জিয়া দেশের যেকোনো হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে পারবেন’

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
159

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বাসায় থেকে দেশের যে কোনো হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নিতে পারবেন বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

খালেদা জিয়ার দণ্ড স্থগিত করে মুক্তির মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়িয়ে সোমবার (১৫ মার্চ) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। পরে এটা নিয়ে সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য তার ভাইয়ের আবেদন অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী তার দণ্ডাদেশ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেছিলেন। তিনি বাসায় থেকে সব ধরনের চিকিৎসা নিতে পারবেন কিন্তু বিদেশে যেতে পারবেন না- এমন শর্তে তার দণ্ডাদেশ স্থগিত করা হয়েছিল ছয় মাসের জন্য। কিছুদিন আগে তার ভাই শামীম ইস্কান্দার আমাদের এখানে এসে আরেকটি আবেদন করেছিলেন এই সময়টা বৃদ্ধির জন্য। প্রধানমন্ত্রী সেই আবেদনে সাড়া দিয়ে আরও ছয় মাস বৃদ্ধি করে দিয়েছেন। এখন থেকে তিনি আরও ছয় মাস নিজ বাসায় থেকে চিকিৎসা সেবা নিতে পারবেন। আগামী ২৫ মার্চ থেকে এটা কার্যকর হবে।’

এর আগে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসা নিতে পারবেন কিন্তু তারা চেয়েছিল ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে। খালেদা জিয়া কোথায় চিকিৎসা নিতে পারবেন- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘দেখুন, উনি বিদেশে যেতে পারবেন না। আর সব জায়গায় তিনি তার চিকিৎসার প্রয়োজনে চিকিৎসা সেবা নিতে পারবেন।’

‘নিজ বাসা থেকে তিনি যেকোনো হসপিটালে যেতে পারবেন। তিনি যেখানে মনে করেন যেভাবে মনে করেন সেই চিকিৎসা সেবা নিতে পারেন। তার ঠিকানাটা হবে নিজ বাসা।’

এর মানে তিনি যে হাসপাতালে চান সেই হাসপাতালে যেতে পারবেন- এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘হাসপাতালে যদি প্রয়োজন হয়, ওই রকম প্রয়োজন না হলে যাবেন কেন? যদি প্রয়োজন হয় এমন কোনো ইর্মাজেন্সি আসে যে হাসপাতালে নিতে হবে, সেখানে আমাদের কোনো বাধা নেই। তবে হাসপাতাল দেশের মধ্যে হতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘কোন হাসপাতালে যদি তাকে চেক করতে হয় পরীক্ষা করতে হয়, একটা এক্সরে করতে হয়, সেখানে তিনি যাবেন। তবে অবস্থানটা তার নিজ বাসায় থাকতে হবে।’

আগের তুলনায় শর্ত কিছুটা শিথিল হলো কি-না জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘আগের শর্তেই মেয়াদ আরও ছয় মাস বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এখানে কোনো কিছু শিথিল হয়নি।’

খালেদা জিয়া কি কোনো হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিতে পারবেন- এ বিষয়ে জানতে চাইলে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘আমি ক্লিয়ার করেছি, তিনি নিজ বাসা থেকে চিকিৎসা সেবা নেবেন। যদি ইর্মাজেন্সি কোনো প্রয়োজন হয়, তবে তিনি হাসপাতালের সহযোগিতা নিতে পারবেন এটিই বলা হয়েছে।’

‘বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নেয়া এবং বিদেশে না যাওয়ার শর্তে তার সাজা স্থগিত করা হয়েছে- তার মানে এই নয় যে, তিনি এখনই হাসপাতালে গিয়ে ভর্তি হবেন। জরুরি কোনো অবস্থায় তিনি চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সহযোগিতা নিতে পারবেন।’

চিকিৎসা হোক বা হাসপাতালে ভর্তি হোক সেটা দেশে থেকেই হতে হবে- এ বিষয়ে আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘ভর্তির কথা তো আমরা বলছি না, আমরা বলছি সেবা নিতে পারবেন।’

বিদেশ থেকে কি কোনো চিকিৎসক এসে বেগম জিয়ার চিকিৎসা করতে পারবেন- জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এগুলো নিয়ে এখনো আমাদের আলোচনা হয়নি, আলোচনা হলে সেগুলো আমাদের চিকিৎসকরা জানেন, অন্যরা জানেন। তিনি এই রকম আবেদন করেননি।’

আপনি বলেছিলেন তার বাসাটাই কারাগার- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে মন্ত্রী বলেন, ‘না, ঠিক সেইরকম কিছু নয়। ছয় মাসের জন্য সাজা স্থগিত করা হয়েছে। ছয় মাস তিনি মুক্ত।’

নিজ বাসায় অবস্থানকালে দলীয় নেতাকর্মীরা কি তার সঙ্গে দেখা করতে পারবেন- এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘এখনো করছে, সবাইতো যাচ্ছেন।’

খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে নিয়ে যাওয়া, দণ্ড মওকুফসহ অন্য আবেদন বিবেচনায় নেয়া হয়নি বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

অর্থসূচক/এমএস