শুরুতেই হতাশ দিঘী ভক্তরা

শিশুশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্রে অভিনয় করে সবার মন জয় করেছেন দিঘী। কাজের স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। সেই ছোট্ট দিঘী আজ নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করছেন। আর নায়িকা হিসেবে বড় পর্দায় তার অভিষেক হতে যাচ্ছে চলতি মাসের ১২ তারিখ।

নির্মাতা দেলোয়াল জাহান ঝন্টুর ‘তুমি আছ তুমি নেই’ ছবির মাধ্যমে বড় পর্দায় নায়িকা হিসেবে দেখা মিলবে দিঘীর। ছবিটিতে জুটি বেঁধে অভিনয় করছেন বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় নায়ক আসিফ ইমরোজ।

ছবিটি মুক্তি উপলক্ষে ইতোমধ্যে দুইটি পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিভিন্ন গ্রুপে চোখ পড়লেই দেখা যাচ্ছে পোস্টার গুলো। তবে পোস্টার নিয়ে বেশ হতাশ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকেই। এমনকি হতাশ হয়েছেন সেই ছোট্ট দিঘীর ভক্তরাও।

পোস্টার নিয়ে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে নানা রকম নেতিবাচক লেখা। অনেকেই বলছেন ছোট্ট দিঘীর জনপ্রিয়তা কম না। যে কিনা কাজের সম্মাননা হিসেবে পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। নায়িকা হিসেবে সেই দিঘীর প্রথম ছবি মুক্তি পেতে যাচ্ছে, কিন্তু ছবির পোস্টার দেখেই হতাশ। ডিজিটাল এই সময়ে এসে এ ধরনের পোস্টার দর্শকদের হতাশ করছে। শুধু তাই নয় নায়িকা হিসেবে দিঘীর অভিষেকেও প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। আবার অনেকেই পোস্টার দেখেই ছবির মান নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন।

এ বিষয়ে অর্থসূচকের সাথে আলাপ হলে দিঘী বলেন, প্রত্যেক জিনিসের ভালো-খারাপ দুই দিকই আছে। তবে আমার প্রত্যাশা আরো ভালো কিছু ছিলো পোস্টার নিয়ে। এখন তো আর কিছু করার নেই, যা হয়েছে আল্লহাদুল্লিলাহ।

সব আলোচনা-সমালোচনা পেছনে ফেলে এখন দেখার বিষয় সেই ছোট্ট দিঘী অভিনয় দিয়ে কতটুকু মন জয় করে নিতে পারেন চলচ্চিত্র প্রেমীদের।

প্রসঙ্গত, কাজী হায়াতের ‘কাবুলীওয়ালা’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ে দিঘীকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এনে দেয়। এরপর চাচ্চু, দাদীমা, এক টাকার বউ চলচ্চিত্রগুলো তাকে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে পৌঁছে দিয়েছে।

২০১২ সালে মনতাজুর রহমান আকবরের ‘ছোট্ট সংসার’ ছবিতে শেষবার দেখা গিয়েছিল দিঘীকে। দীর্ঘ আট বছর পর দিঘী ফিরলেন নায়িকা হয়ে।

অর্থসূচক/এএ/কেএসআর