সিরিয়ায় ইসরায়েলের ক্ষেপনাস্ত্র হামলা

0
218

গোলান হাইটস থেকে দামাস্কাস লক্ষ্য করে ইসরায়েল একাধিক ক্ষেপনাস্ত্র ছোঁড়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সিরিয়া। বেশির ভাগ ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানার আগেই ধ্বংস করা হয়েছে বলেও দাবি করেছে তারা।

দেশটির সরকারি সংবাদসংস্থা সানা জানিয়েছে, ‘ইসরায়েল দখলকৃত গোলান হাইটস থেকে দামাস্কাসে নির্দিষ্ট লক্ষ্যে ক্ষেপনাস্ত্র ছোঁড়ে। সিরিয়ার এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম অধিকাংশ ক্ষেপনাস্ত্র ধ্বংস করতে পেরেছে। কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর নেই।’

২০১১ সালের গৃহযুদ্ধের পর থেকে সিরিয়ায় একাধিক হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। কয়েকদিন আগেই আমেরিকাও সিরিয়া-ইরাক সীমান্তে ইরানপন্থি মিলিশিয়ার উপর আক্রমণ চালিয়েছিল।

যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক সিরিয়ান অবজারভেটারি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, দামাস্কাসের দক্ষিণে ক্ষেপনাস্ত্র হানা চালানো হয়। এখানেই ইরানের রেভলিউশনারি গার্ড ও হেজবোল্লাহদের ঘাঁটি।

ইসরায়েলের সামরিক মুখপাত্র এনিয়ে কোনো কথা বলতে চাননি। তবে ইসয়ালের সরকারি সংস্থা কান জানিয়েছে, সেখানকার সেনা কর্তারা রোববার সন্ধ্যায় আলোচনায় বসোছিলেন। তাঁরা গালফ অফ ওমানে ইসরায়েলের একটি জাহাজে ইরানের আক্রমণ নিয়ে আলোচনা করেন। ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, তাঁদের পণ্য জাহাজে ইরানই আক্রমণ করেছিল বলে তাঁর বিশ্বাস। সিরিয়ায় ইরানের দখলদারি ঠেকাতে ইসরায়েল এখন প্রায় প্রতি সপ্তাহেই হামলা চালাচ্ছে।

ইসরায়েলের দাবি, ইরানের বাহিনীর সিরিয়ায় থাকার কোনো অধিকার নেই। ইরান যাতে সেখানে কোনো প্রভাব বিস্তার করতে না পারে, তার জন্য ইসরায়েল সক্রিয়। পশ্চিমা গোয়েন্দা সূত্রের মতে, ইরানের বিরুদ্ধে ছায়াযুদ্ধ চালাচ্ছে ইসরায়েল। সূত্র: এপি, রয়টার্স, এএফপি

 

অর্থসূচক/এএইচআর