মায়ের চিকিৎসার টাকা জোগাতে ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত

0
247
বাংলাদেশের টেস্ট জার্সি গায়ে শাহাদাত।

ক্যারিয়ারে নানা সময়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন শাহাদাত হোসেন রাজিব। বাড়ির গৃহকর্মীকে মারধরের অভিযোগে বেশ বিপাকে পড়তে হয়েছিল তাঁকে। শেষবার সতীর্থ আরাফাত সানি জুনিয়রকে মারধরের অভিযোগে ৫ বছরের নিষেধাজ্ঞাও (২ বছর স্থগিত করা হয়েছে) পেয়েছেন তিনি। নিষেধাজ্ঞার এখনও প্রায় বছর দেড়েক বাকি থাকলেও ক্রিকেটে ফিরতে চান তিনি।

এখন পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ না হলেও ক্যান্সারে আক্রান্ত মায়ের চিকিৎসার টাকা জোগাতে আবারও ক্রিকেটে ফিরতে চান শাহাদাত। মায়ের চিকিৎসার টাকা জোগানোর জন্য অন্য কোনো উপায় না পেয়ে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। এ নিয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত জানায়নি বোর্ড।

নিজের ভুলের জন্য অনুতপ্ত এবং ভবিষ্যতে আর কখনও এমন ভুল করবেন না জানিয়ে শাহাদাত বলেন, ‘আমি সম্প্রতি আমার নিষেধাজ্ঞা কমাতে বোর্ডের কাছে আবেদন করেছি, এখন বাকিটা তাদের উপর নির্ভর করে। ক্রিকেট ছাড়া আমি আর কোনো কাজ করতে জানি না। আমি আমার ভুলের জন্য অনুতপ্ত। জোর দিয়ে বলেছি যে, যদি বিসিবি আমার সম্পর্কে আর কখনও কোনও ধরনের অভিযোগ পায় তাহলে আমি আমার মুখ দেখাব না। আমি জানতাম না যে আমি বল করতে পারব না। আমি সেখানে (মিরপুর) গিয়ে নেট বোলার হিসাবে বল করছিলাম। হঠাৎ করে প্রধান কিউরেটর গামিনী আমাকে প্রাঙ্গণ ছেড়ে যেতে বলেছিল। যখন আমাকে মাঠ ছাড়তে বলা হয়েছিল তখন আমার চোখের জল ধরে রাখতে পারিনি। লর্ডস অনার্স বোর্ডে আমার নাম রাখার সুযোগ পেয়েও নেট বোলারের সঙ্গে অংশ নিতে পারিনি। এটি আমার ভাগ্যে লেখা ছিল, আমার এটি (ক্রিকেট) নিয়েই সাথেই বাঁচতে চাই।’

২০০৬ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেট দিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে অভিষেক হয়েছিল শাহাদাতের। ক্রিকেটের এই মর্যাদার ফরম্যাটে দেশের হয়ে খেলেছেন ৩৮ ম্যাচ। যেখানে তাঁর উইকেট সংখ্যা ৭২। বাংলাদেশি পেসারদের মাঝে তাঁর উপরে রয়েছেন কেবল মাশরাফি বিন মুর্তজা। তাঁর উইকেট সংখ্যা ৭৮টি। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ৫ উইকেট নিয়ে লর্ডসের অনার্স বোর্ডে নাম লিখিয়েছেন তিনি। রঙিন পোশাকের ক্রিকেটে বাংলাদেশের হয়ে খেলেছেন ৫১ ওয়ানডে ও ৬ টি-টোয়েন্টি। ওয়ানডেতে ৪৭ আর টি-টোয়েন্টিতে নিয়েছেন ৪টি উইকেট।

 

অর্থসূচক/এএইচআর