হামলার ভয়ে আমেরিকায় সতর্কতা জারি

0
150

এক সপ্তাহ আগেই নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান নির্বিঘ্নে হয়েছে। সন্ত্রাসের আশঙ্কা থাকলেও শেষ পর্যন্ত বড় কোনো বিপর্যয় ঘটেনি। কিন্তু তারপরেও যথেষ্ট সতর্ক দেশটির প্রশাসন। মার্কিন হোমল্যান্ড সিকিওরিটির তরফে জানানো হয়েছে, আগামী বেশ কিছুদিন দেশ জুড়ে সন্ত্রাসের সতর্ক বার্তা জারি রাখা হয়েছে। যে কোনো সময় অঘটন ঘটতে পারে।

যদিও ঠিক কী ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে? স্পষ্ট করেনি মার্কিন নিরাপত্তা বাহিনী। বলা হয়েছে, নির্বাচনের পর থেকে বেশ কিছু চরমপন্থি গোষ্ঠী হামলার পরিকল্পনা করছে। ক্যাপিটলের ঘটনায়ও তাদের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে। যদিও ক্যাপিটলের ঘটনার পরেই আমেরিকা জুড়ে নিরাপত্তা কয়েক গুণ বাড়ানো হয়। সম্ভবত সেই কারণেই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের দিন তারা বড় কোনো অঘটন ঘটাতে পারেনি। কিন্তু এখনো তারা নানা ধরনের পরিকল্পনা করছে বলে মার্কিন গোয়েন্দাদের কাছে খবর আছে। তবে নির্দিষ্ট কোনো গোষ্ঠীর নাম নিরাপত্তাবাহিনী জানাতে রাজি হয়নি।

বুধবার সাংবাদিক বৈঠক করে এ তথ্য জানিয়েছেন হোমল্যান্ড সিকিওরিটির কর্মকর্তারা। তাঁরা জানান, আমেরিকার ৫০টি রাজ্যেই পুলিশকে সতর্ক করা হয়েছে। চরমপন্থি একাধিক গোষ্ঠীর কার্যকলাপে নজরদারি চালানোর নির্দেশ জারি হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্টেও নজরদারি চালানো হচ্ছে।

নির্বাচনের পর থেকেই কারচুপির অভিযোগ তুলতে শুরু করেছিলেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তথ্য-প্রমাণ দিতে না পারলেও নিজের সমর্থকদের যথেষ্ট উসকে দিতে পেরেছিলেন তিনি। ক্যাপিটলে আক্রমণের দিন ট্রাম্প বক্তৃতা করেছিলেন। সেখানে তিনি বলেছিলেন, দেশকে বাঁচাতে হলে এখনই চরম পদক্ষেপ নিতে হবে। তারপরই দলে দলে ট্রাম্প সমর্থক ক্যাপিটলে হামলা চালায়। ওই দলে একাধিক চরমপন্থি গোষ্ঠীর সদস্য ছিল বলে গোয়েন্দারা জানতে পেরেছেন। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সহিংস আক্রমণ চালানোর পরিকল্পনা তারা করছে বলেও গোয়েন্দারা জানতে পেরেছেন। সে কারণেই আমেরিকা জুড়ে এই সতর্কতা জারি করা হয়েছে। সূত্র: রয়টার্স, এপি

 

অর্থসূচক/এএইচআর