দুই মাসের মধ্যে বিমান কেনার প্রস্তাব চূড়ান্ত হবে: মন্ত্রী

উড়োজাহাজ নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান এয়ার বাস ও বোয়িংয়ের প্রস্তাব মূল্যায়ন করে আগামী ১ থেকে ২ মাসের মধ্যে বিমান কেনার বিষয়টি চূড়ান্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী মুহাম্মদ ফারুক খান।

রোববার (৭ জুলাই) সচিবালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, মূল্যায়ন কমিটি রিপোর্ট দেওয়ার আগ পর্যন্ত বিমান কেনার বিষয়টি চূড়ান্ত হবে না।

কবে নাগাদ এটি চূড়ান্ত হবে- জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি আগামী ১ থেকে ২ মাসের মধ্যে এটার প্রক্রিয়া শেষ হবে। এবারের বাজেট থেকেই আমাদের এটার জন্য অর্থায়ন করতে হবে।

কতটি বিমান কেনা হচ্ছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ১০টির মতো বিমান কেনার পরিকল্পনা আছে আমাদের। আপাতত কতটি বিমান কিনবো সেটা নির্ভর করে যে অর্থনৈতিক প্রস্তাব এসেছে সেটার ওপর ভিত্তি করে তারা (মূল্যায়ন কমিটি) আমাদের কী রিপোর্ট করে। তবে অবশ্যই দুই থেকে চারটির মতো হতে পারে।

রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে বিমানমন্ত্রী বলেন, তিনি বিভিন্ন আমেরিকান কোম্পানির কথা বলেছেন, যারা বাংলাদেশের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য করছে। আগামীতে সেটা আরও সম্প্রসারণ করতে আগ্রহী। আমিও তাকে জানিয়েছি যে আমরা যেভাবে টেন্ডারের মাধ্যমে কেনাকাটা করি, ইভ্যালুয়েশনের মাধ্যমে সেভাবেই করবো। সবসময় আমরা একটা ভালো প্রোডাক্ট নিতে চাই এবং আগামীতেও তাই নেবো।

তিনি বলেন, আলোচনায় তিনি (রাষ্ট্রদূত) বোয়িংয়ের কথা বলেছেন। আমরা বলেছি, আগামী দিনে আমরা যখন বিমান কিনবো সেখানে কী ধরনের কোন প্লেন কিনবো, সেটা মূল্যায়ন করছি। মূল্যায়ন শেষ হয়নি, সেটা যখন শেষ হবে, ইভ্যালুয়েশন কমিটি যে কোম্পানিকে সুপারিশ করবে, সেই কোম্পানি থেকে কেনার বিষয়টি আমরা বিবেচনা করবো।

অর্থসূচক/এমএস

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.