মাসুদ না জালিলি, কে হচ্ছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট?

গত ২৮ জুন ইরানের ১৪ তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ইরান জুড়ে ৫৮ হাজার ৬৪০টি ভোট কেন্দ্রে গৃহীত ভোটের সংখ্যা ছিল ২ কোটি ৪৫ লাখ ৩৫ হাজার ১৮৫। ৪ জন প্রার্থীর মধ্যে ভোটের ফলাফল থেকে বোঝা যাচ্ছে ইরানের প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের কেউই অর্ধেক প্লাস ওয়ান ভোট পেতে সক্ষম হননি। সুতরাং নিয়ম অনুযায়ী প্রথম দুই প্রার্থী মাসুদ পেজেশকিয়ন এবং সাঈদ জালিলির মধ্যে দ্বিতীয় দফা ভোট অনুষ্ঠিত হবে।

প্রকাশিত তফসিল অনুসারে দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের মধ্যে প্রথম বিতর্ক ১ জুলাই এবং দ্বিতীয় বিতর্ক ২ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে। আগামি ৫ জুলাই দ্বিতীয় দফা প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। দুই প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা সম্পর্কে সংক্ষেপে জেনে নেওয়া যাক।

মাসুদ পেজেশকিয়নের যোগ্যতা এবং কর্মদক্ষতা: হার্ট সার্জারিতে স্পেশালিস্ট, তাবরিজ ইউনিভার্সিটি অফ মেডিক্যাল সায়েন্সের ডিন, ইরানের স্বাস্থ্য, চিকিৎসা ও চিকিৎসা শিক্ষামন্ত্রী, ইরানের দশম পার্লামেন্টের প্রথম ডেপুটি স্পিকার, তাবরিজ থেকে পরপর ৪বার নির্বাচিত এমপি।

সাইদ জলিলীর যোগ্যতা ও কর্মদক্ষতা: রাষ্ট্রবিজ্ঞানে তিনি পিএইচডিধারী। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন বিভাগে তাঁর উপস্থিতি ছিল। ইউরোপ ও আমেরিকা বিষয়ক উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী, ইরানের প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা, ইরানের সুপ্রিম ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের সচিব, ইরানের পরমাণু বিষয়ক আলোচক দলের প্রধান, ইরানের নীতি নির্ধারণী পরিষদের সদস্য, ইরানের বৈদেশিক সম্পর্কের কৌশলগত কাউন্সিলের সদস্য। পার্সটুডে

অর্থসূচক/এএইচআর

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.