প্রিমিয়ার ব্যাংকের ৪ কর্মকর্তার বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা

বেসরকারি খাতের প্রিমিয়ার ব্যাংক পিএলসি’র চার কর্মকর্তার বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন আদালত। তিন হাজার কোটি টাকা ভুয়া ঋণ মঞ্জুর করে অর্থ আত্মসাৎ করার অভিযোগে এই নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

আদালতের নিষেধাজ্ঞার কারনে ব্যাংটির যেসব কর্মকর্তারা বিদেশ যেতে পারবেন না- প্রিমিয়ার ব্যাংকের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ও নারায়ণগঞ্জ শাখার ব্যবস্থাপক মো. শহিদ হাসান মল্লিক, ভাইস প্রেসিডেন্ট ও নারায়ণগঞ্জ শাখার দ্বিতীয় কর্মকর্তা মুশফিকুল আলম, ফরেন এক্সচেঞ্জ ইনচার্জ দীপক কুমার দেবনাথ ও ক্রেডিট ইনচার্জ মোহাম্মদ মেহেদী হাসান সরকার।

রোববার (২৩ জুন) দুদকের উপ-পরিচালক মো. মোস্তাফিজুর রহমানের আবেদনের প্রেক্ষিতে ঢাকার সিনিয়র স্পেশাল জজ মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালত শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) বিশেষ পিপি মাহমুদ হোসেন জাহাঙ্গীর নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি গণমাধ্যমে নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, দুদকের উপপরিচালক মো. মোস্তাফিজুর রহমান বিদেশ গমনে নিষেধাজ্ঞার আবেদন করেন। ওই আবেদনের ওপর শুনানি শেষে আদালত নিষেধাজ্ঞা জারি করেন।

অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠানের নামে তিন হাজার কোটি টাকা ঋণ মঞ্জুর করে তা আত্মসাতের অভিযোগে করা মামলার তদন্ত চলমান থাকায় এই নিষেধাজ্ঞার আবেদন করা হয়।

আবেদনে বলা হয়, অভিযুক্ত কর্মকর্তারা ব্যাংক টু ব্যাংক এলসি সুবিধার আড়ালে জালিয়াতি, অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে ৪৩টি সন্দেহভাজন তৈরি পোশাক রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে প্রায় তিন হাজার কোটি টাকার ভুয়া ঋণ মঞ্জুর করে আত্মসাৎপূর্বক তা পাচার করেন।

আবেদনে আরও উল্লেখ করা হয়, এই অপরাধে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ অনুসন্ধানাধীন রয়েছে। গোপন সূত্রে জানা গেছে, অভিযোগ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা অর্থপাচার ও দেশত্যাগের পরিকল্পনা করছেন। এ জন্য তাদের বিদেশ গমনে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা একান্ত প্রয়োজন।

অর্থসূচক/

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.