চিকিৎসায় কোনো ধরনের অবহেলা মেনে নেবো না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন বলেছেন, ‘চিকিৎসাসেবায় চিকিৎসকদের পাশাপাশি জনপ্রতিনিধিদের আরও বেশি সচেতন হতে হবে। কোনো চিকিৎসকের ওপর হামলা যেমন আমি মেনে নিব না, তেমনি চিকিৎসায় কোনো ধরনের অবহেলা করলে সেটাও আমি মেনে নিতে পারবো না।’

বুধবার (১৭ এপ্রিল) বিকেলে কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন শেষে চিকিৎসদের নিয়ে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।

গতকাল মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) চট্টগ্রামের পটিয়ায় চিকিৎসদের ওপর হামলার ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চিকিৎসাকাজে চিকিৎসকদের আরও বেশি মনোযোগী ও আন্তরিক হতে হবে। চিকিৎসকদের যেমন সুরক্ষা দেওয়ার দায়িত্ব আমার, আবার রোগীদের সুরক্ষা দেওয়ার দায়িত্বও আমার। যদি কোনো চিকিৎসকের বিরুদ্ধে পেশাগত দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পাওয়া যায় তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশের চিকিৎসাসেবা বিশ্বের অনেক উন্নত দেশের তুলনায় এগিয়ে আছে। বাংলাদেশের চিকিৎসাসেবা নিয়ে সম্প্রতি ভুটানের রাজা জিগমে খেসার নামগিয়েল ওয়াংচুক ভুয়সী প্রশংসা করেন। ভুটানের রাজার আমন্ত্রণে বাংলাদেশ সরকার ভুটানে বার্ন হাসপাতাল করার চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচিত করোনার টিকা নেওয়ার পর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসেবে চর্ম রোগ দেখা দেওয়া নিয়ে প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যেকোনো ড্রাগেই এলার্জি প্রতিক্রিয়া থাকতে পারে। তবে এ বিষয়টি আমি এখনও শুনিনি।’

এর আগে চান্দিনার মাধাইয়া ইউনিয়নের সোনাপুর কমিউনিটি ক্লিনিক উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর একান্ত সচিব কমল কুমার ঘোষ, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সারওয়ার হোসেন, জেলা প্রশাসক খন্দকার মু. মুশফিকুর রহমান, পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান, সিভিল সার্জন ডা. নাছিমা আক্তার প্রমুখ।

অর্থসূচক/এমএস

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.