শিগগির মূল্যস্থীতি হ্রাস পাবে: প্রধানমন্ত্রী

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যখন রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বাধল, স্যাংশন-কাউন্টার স্যাংশনের ফলে মুদ্রাস্ফীতি একটু বেড়েছে। সেটা নিয়ন্ত্রণে আমরা চেষ্টা চালিয়েছি। খুব শিগগির এই মূল্যস্থীতি হ্রাস পাবে। মানুষ আরও ভালোভাবে চলতে পারবে, থাকতে পারবে।

শনিবার বিকেলে কক্সবাজারের মহেশখালীর টাউনশিপ মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে দেশের মানুষের উন্নয়ন। আর সেই উন্নয়নের জন্যই আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমি ওয়াদা দিয়েছিলাম প্রত্যেক ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ দেওয়া হবে। আজকে আমরা প্রত্যেক ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ দিচ্ছি। দেশের মানুষ যাতে সুন্দরভাবে বাঁচতে পারে, সে ব্যবস্থা করে দিচ্ছি।

সরকারপ্রধান বলেন, আমরা চাই, দেশের মানুষে শান্তিতে থাকুক। সেটাই আমাদের লক্ষ্য। আমরা যখনই ক্ষমতায় আসি, তখনই মানুষের কল্যাণে কাজ করি। কারণ এ দেশের মানুষ উন্নত জীবন পাবে, কেউ ক্ষুধার জ্বালায় কষ্ট পাবে না। প্রত্যেকটা মানুষ সুন্দরভাবে বাঁচবে। সেই লক্ষ্য নিয়েই আমাদের কাজ। আজকে যখন পণ্য মূল্য বেড়ে গেছে, আমরা উপকরণভোগী কার্ড দিচ্ছি। ভিজিএফ, ভিজিডির মাধ্যমে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছি। যখন সমুদ্রে মাছ ধরা নিষিদ্ধ থাকে, আমাদের জেলেদের কার্ড দিয়েছি এবং আমরা তাদের খাদ্য সহযোগিতা দিয়ে থাকি এবং বিকল্প কাজের ব্যবস্থা করে দিয়ে থাকি। যাতে মানুষ কষ্ট না পায়, সেদিকে লক্ষ্য রেখেই আমরা কাজ করি।

তিনি বলেন, আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে আমরা দেশের ভূমিহীন সবাইকে ঘর করে দিচ্ছি। দেশে কেউ ভূমিহীন ও ঘর ছাড়া থাকবে না। দেশের মানুষকে আর বিদ্যুতের জন্য কষ্ট করতে হবে না। মাতারবাড়ী বিদ্যুৎকেন্দ্রে উৎপাদিত বিদ্যুৎ দেশের জাতীয় গ্রিডে যোগ হলে আমাদের বিদ্যুৎ পরিস্থিতির আরও উন্নতি হবে। ভবিষ্যতে আমরা আরও উন্নয়ন করব।

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘১৫ বছর আগের বাংলাদেশ আর এখনকার বাংলাদেশ, যে পরিবর্তন আমরা করেছি, আজকে যার বয়স ১৫ বছর; সে মনে করবে এটা তো সে রকমই ছিল কিন্তু তা না। এমনকি ২০ বছরের যে ছেলে, ২৫ বছর হয়েছে, সে একবার চিন্তা করে দেখুক! বাংলাদেশ এখন বদলে গেছে। কারণটা হলো আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে। আর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে কীভাবে? নৌকা মার্কায় ভোট দিয়েছেন বলেই, আপনারা সংসদ নির্বাচিত করেছেন বলেই আমরা সরকার গঠন করতে পেরেছি।

শেখ হাসিনা বলেন, আমার বাবা এ দেশ স্বাধীন করে দিয়ে গেছেন। আপনাদের ভাগ্য গড়া আমাদের কাজ। আপনারা জানেন, আমি কয়েক দিন আগে সৌদি আরব গিয়েছিলাম। আমি মদিনা শরীফ নবী করিম (সা.) এর রওজা জিয়ারত করেছি। মক্কায় আমি ওমরা পালন করেছি। আমি বাংলাদেশের জনগণের জন্য, যেভাবে আমি আমার নিজের সন্তানের জন্য দোয়া চাই, সেইভাবে বাংলাদেশের মানুষের জন্য আমি দোয়া চেয়েছি যে, এই বাংলাদেশের মানুষের যেন আর কষ্ট করতে না হয়। তারা যেন সুন্দর জীবন পায়, সুন্দরভাবে বাঁচতে পারে।

এর আগে এর আগে দুপুরে ১৮ হাজার কোটি টাকায় নির্মিত দোহাজারী-কক্সবাজার রেললাইন ও কক্সবাজারের আইকনিক রেলস্টেশন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। আইকনিক স্টেশনের উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ে নেটওয়ার্কের ৪৮তম জেলা হিসেবে যুক্ত হয় কক্সবাজার।

অর্থসূচক/এএইচআর

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.