সূচকের উর্ধমুখী যাত্রা পতনে শেষ

আগের দিনের মতো একই ধারায় শেষ হয়েছে পুঁজিবাজারের লেনদেন। আজও লেনদেনের শুরুটা ছিল বেশ আশা জাগানিয়া। সূচকে ছিল উর্ধমুখী ধারা। দিনের মাঝামাঝি এসে ওই ধারায় ছেদ পড়ে। বিপরীত দিকে যাত্রা শুরু করে সূচক। আর আগের দিনের চেয়ে বেশ নিচে নেমে এসে শেষ হয় সূচকের যাত্রা।

তবে একেবারে হতাশ করেনি বাজার। সূচক কমলেও আজ লেনদেন ভালোই বেড়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই)।

আজ মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ৮ দশমিক ৯৩ শতাংশ কমে ৬ হাজার ৩৮৪ দশমিক ০৯ পয়েন্টে নেমে এসেছে। অথচ দিনের শুরুতে এতে ছিল উর্ধমুখী গতি। বেলা সাড়ে ১১টা নাগাদ সূচকটি আগের দিনের চেয়ে ২৫ দশমিক ৭৯ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৪১৮ দশমিক ৮১ পয়েন্টে উঠে যায়। কিন্তু এর পর থেকে তা ধীরে ধীরে কমতে থাকে।

আজ ডিএসইতে এক হাজার ৪৯৪ কোটি ৫৪ লাখ টাকা মূল্যের শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে ২৫৮ কোটি ৮৯ লাখ টাকা বা প্রায় ২১ শতাংশ বেশি। গতকাল এই বাজারে এক হাজার ২৩৫ কোটি ৬৫ লাখ টাকা মূল্যের শেয়ার কেনাবেচা হয়েছিল।

ডিএসইতে আজ ৩৬২টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে মাত্র ৬৮টির (১৮.৭৮%)। দাম কমেছে ৭৪টির (২০.৪৪%)। আর ২২০টি বা ৬০ দশমিক ৭৭ শতাংশের দাম ছিল অপরিবর্তিত।

আজ লেনদেনে সবার উপরে ছিল যথাক্রমে বসুন্ধরা পেপার মিল, জেনেক্স ইনফোসিস, ওরিয়ন ফার্মা, নাভানা ফার্মা ও ইস্টার্ন হাউজিং। শেয়ারের দর বৃদ্ধিতে শীর্ষ ৫টি কোম্পানি হচ্ছে-সামিট অ্যালায়েন্স পোার্ট, শমরিতা হাসপাতাল, চার্টার্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স, মালেক স্পিনিং ও অ্যাপেক্স ফুড। অন্যদিকে শেয়ারের দর হারানোর শীর্ষে ছিল ইস্টার্ন হাউজিং, ইন্দোবাংলা ফার্মা, এডিএন টেলিকম, লুবরেফ বাংলাদেশ ও জেএমআই হসপিটাল।

 

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...