মার্ভেল, ডিজনি ও স্টারওয়ার্সের ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে এলো ইয়োলো

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক পোশাক ব্র্যান্ড ‘মার্ভেল’, ‘ডিজনি’ ও ‘স্টার ওয়ার্সের’ ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে এসেছে অন্যতম প্রধান ফ্যাশান ও লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ইয়োলো। ‘অ্যাসেম্বল দ্যা ফোর্স অব হ্যাপিনেস’ শীর্ষক জাঁকজমকপূর্ণ লঞ্চিং ইভেন্টের মধ্য দিয়ে গত বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) ইয়োলোর গুলশান অ্যাভিনিউ ফ্লাগশিপ স্টোরে ব্যান্ড তিনটির উদ্বোধন করা হয়।

লঞ্চিং ইভেন্টে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেক্সিমকো গ্রুপের সিইও ও গ্রুপ ডিরেক্টর সৈয়দ নাভেদ হোসেন। এছাড়াও ইয়োলোর এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর শেহরিয়ার বার্নি ও হেড অব রিটেইল অপারেশন’স হাদি এস এ চৌধুরী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

অন্যান্য অতিথি ও সাংবাদিকবৃন্দ সহ আমেরিকার বিখ্যাত ফ্যাশান ব্র্যান্ড মাইকেল কর’স এর ডিরেক্টর অব সোর্সিং দোনা কে মরেলো ও ডিরেক্টর অব প্রোডাকশন এন্ড্রু পি মিজেরিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। মাইকেল কর’স কাপ্রি হোল্ডিংসের মালিকানাধীন, যারা জিমি চো ও ভার্সেসেরও মালিক।

অনুষ্ঠানে সৈয়দ নাভেদ হোসেন বলেন, “স্বনামধন্য এইসব আন্তর্জাতিক ব্যবসার সাথে ফ্র্যাঞ্চাইজি হিসেবে যুক্ত হতে পেরে আমরা খুবই সন্মানিতবোধ করছি। এছাড়াও আমরা গর্বিত যে বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিনোদন কোম্পানি ডিজনি বেক্সিমকোর সাথে অংশীদারিত্বে এসেছে। এটা বেক্সিমকো ও বাংলদেশ উভয়ের স্বদিচ্ছা ও বিশ্বাসযোগ্যতা বাড়াবে। আমরা মনে করি, এই ব্র্যান্ডগুলোর বাংলদেশে প্রবেশের এটাই উত্তম সময় ছিল।”

বাংলাদেশের হালফ্যাশনের ব্র্যান্ড ইয়োলো তাদের আন্তর্জাতিক মানের ডিজাইন এবং কাপড়ের জন্য অনন্য। সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখতে ইয়োলো এই ব্র্যান্ডগুলোকে দেশে নিয়ে এসেছে। বাংলাদেশে ডিজনি, মার্ভেল এবং স্টার ওয়ার্স এর অফিসিয়াল মার্চেন্ডাইজ এখন শুধুমাত্র ইয়োলো আউটলেট এবং এর ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মে পাওয়া যাবে।

ওয়াল্ট ডিজনি কোম্পানি– ডিজনি নামে খ্যাত আমেরিকান এই বহুজাতিক গণমাধ্যম এবং বিনোদন সংস্থা ১৯২৩ সালের ১৬ অক্টোবর ওয়াল্ট এবং রয় ও ডিজনি নামের দুই ভাই প্রতিষ্ঠা করে। কোম্পানিটি মিকি মাউসের মতো আইকনিক চরিত্র তৈরি করে অ্যানিমেশন শিল্পে নিজেকে অন্যতম উচ্চতায় প্রতিষ্ঠিত করেছে, যা সারা বিশ্বে ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়।

মার্ভেল এন্টারটেইনমেন্ট, এলএলসি – ১৯৯৮ সালে প্রতিষ্ঠিত একটি আমেরিকান বিনোদন সংস্থা – মার্ভেল মূলত কমিক্স বইয়ের পাশাপাশি ‘মার্ভেল সিনেমাটিক ইউনিভার্স’ (এমসিইউ) সিনেমা এবং টেলিভিশন/স্ট্রিমিং অনুষ্ঠানের জন্য বহুল পরিচিত।

স্টার ওয়ার্স হল একটি বহুমাত্রিক পৌরাণিক কাহিনী এবং মাল্টিমিডিয়া ফ্র্যাঞ্চাইজি যা ১৯৭৬ সালে জর্জ লুকাস প্রতিষ্ঠা করেন। স্টার ওয়ার্সের চলচ্চিত্র, উপন্যাস, কমিকস, ভিডিও গেমস, খেলনা সহ এবং অসংখ্য টেলিভিশন সিরিজ রয়েছে।

ব্র্যান্ড, পণ্য, ফ্যাশান ও আধুনিক ট্রেন্ডের দিকে নজর রেখে এই বিশ্ববিখ্যাত ব্র্যান্ডগুলোর স্টাইল ও অতুলনীয় মান একটি নতুন সতেজ আবহের সৃষ্টি করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...