এসএমইতে বিনিয়োগ সীমা ৩০ লাখ টাকা নির্ধারণ

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) এসএমই খাতে লেনদেন করার যোগ্য হতে হলে কোয়ালিফাইড ইনভেস্টরদের পুঁজিবাজারে সর্বনিম্ন ৩০ লাখ টাকা বিনিয়োগ থাকতে হবে বলে নির্দেশনা জারি করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, এসএমইতে লেনদেন করার যোগ্য হতে পূজিবাজারে যেকোন প্লাটফর্মে (মূল বা এসএমই মার্কেট) ৩০ লাখ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। তবে যারা আগের নির্দেশনার আলোকে ২০ লাখ টাকা বিনিয়োগ দিয়ে যোগ্য হয়েছেন, তাদেরকে যোগ্যতা ধরে রাখতে এর পরিমাণ বাড়িয়ে ৩০ লাখ করতে হবে। নির্দেশনায় এসংক্রান্ত বিষয়ে পরবর্তী ৩ মাস সময় দেওয়া হয়েছে।

বিনিয়োগকারীদেরকে ৩০ লাখ টাকা বিনিয়োগের ভিত্তিতে প্রতি প্রান্তিকে এসএমইতে লেনদেনের যোগ্য করতে স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিনা খরচে রেজিস্ট্রেশন করা হবে। এজন্য প্রতি প্রান্তিকে সিডিবিএল বা ডিপি বিনিয়োগকারীর বিস্তারিত তথ্য স্টক এক্সচেঞ্জে জমা দেবে।

এরইমধ্যে যারা ২০ লাখ টাকা বিনিয়োগ দিয়ে কোয়ালিফাইড ইনভেস্টর হয়ে এসএমই কোম্পানির শেয়ার ধারন করছেন, কিন্তু তারা যদি ৩০ লাখ টাকার শর্ত পূরণ না করেন, তাহলে তারা এসএমইর শেয়ার শুধুমাত্র বিক্রি করতে পারবেন। কিনতে পারবেন না।

এর আগে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি এসএমই মার্কেটে বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহন বাড়াতে কোয়ালিফাইড ইনভেস্টর হওয়ার জন্য পুঁজিবাজারে ৫০ লাখ টাকা থেকে কমিয়ে ২০ লাখ টাকায় বিনিয়োগ নামিয়ে আনে বিএসইসি।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...