পটকা মাছ খেয়ে মা-ছেলের মৃত্যু

খুলনার বটিয়াঘাটায় রান্না করা পটকা মাছ খেয়ে মা-ছেলের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় আরও একজন অসুস্থ হয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় দিকে তারা মারা যান।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন বটিয়াঘাটা উপজেলার জলমা ইউনিয়নের মাথাভাঙ্গা গ্রামের পরী বেগম (৬০) ও তার বড় ছেলে জাহাঙ্গীর (৩৬)।

এ ঘটনায় জাহাঙ্গীরের খালাতো ভাই সাইদুলকে (৩৫) অসুস্থ অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রতিবেশী জহিরুল ইসলাম ও আবুল কালাম আজাদ জানান, পরি বেগমের পরিবারটি দরিদ্র। তারা রূপসা ও কাজীবাছা নদীতে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করতেন। দুপুরে পরী বেগম রূপসা নদী থেকে পটকা মাছ ধরে রান্না করেন। পরে ছেলে জাহাঙ্গীর ও বোনের ছেলে (ভাগনে) সাইদুলকে নিয়ে রান্না করা মাছ খান। এর কিছুক্ষণ পর পরী বেগম অসুস্থ হয়ে পড়লে প্রথমে তাকে স্থানীয় চিকিৎসক ডেকে দেখানো হয়।

চিকিৎসক ওষুধ দেওয়ার পর পরী বেগম বমি করেন। তা খেয়ে মারা যায় বাড়ির কয়েকটি হাঁস ও মুরগি। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মারা যান পরি বেগম। এর কিছুক্ষণ পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছেলে জাহাঙ্গীরও মারা যান। সাইদুল এখনো হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

জাহাঙ্গীরের ভাবি রোজিনা বেগম বলেন, সাইদুলকে হাসপাতালে অক্সিজেন দিয়ে রাখা হয়েছে। তিনি তার খালা পরী বেগমের মতো একই কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন।

লবণচরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

অর্থসূচক/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...