রূপচর্চায় চা পাতা

লিকার চা পান করা স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি। তবে চা পাতা রূপচর্চায়ও দারুন ভূমিকা রাখে। ত্বক ও চুলের যত্নেও চা পাতার ব্যবহার বেশ জনপ্রিয়। চা’য়ে রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, অ্যান্টি এজিং, অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটরি বস্তু যা ত্বক স্বাস্থ্যকর ও সুন্দর রাখতে সাহায্য করে। গ্রিন এবং লিকার চায়ে ক্যাফাইন থাকে যা ক্যাটেচিন এবং পলিফেনল সমৃদ্ধ।

আসুন জেনে নেওয়া যাক ত্বক এবং চুলের জন্য টি-ব্যাগের উপকারিতা-

চোখের ফোলা ভাব দূর করে:

চায়ে উপস্থিত ক্যাফাইন ত্বকের নিচে রক্তজালককে সংকুচিত করে এবং ডার্ক সার্কেল দূর করে। চায়ে উপস্থিত ট্যানিন ফোলা ভাব দূর করে। এর জন্য টি-ব্যাগ পানিতে ভিজিয়ে চোখের ওপরে ৫-১০ মিনিট ধরে রাখতে হবে। এই পদ্ধতি রোজ অবলম্বন করলে চোখের ফলা ভাব এবং ডার্ক সার্কেল দূর করা সম্ভব।

রোদে পোড়া ত্বকের কালো ভাব দূর করে:

চায়ে উপস্থিত ট্যানিক অ্যাসিড ত্বকের কালো ভাব দূর করে। এর জন্য একটা পাত্রে কিছুটা চা পাতি পানিতে ফোটাতে হবে। তারপর ঠাণ্ডা হলে একটা তোয়ালে চুবিয়ে আধঘন্টা প্রয়োজনীয় স্থানে ধরে রাখতে হবে। মুখের ত্বকে জ্বালা ভাব কমাতে সরাসরি টি-ব্যাগও ব্যবহার করতে পারেন।

ত্বক মসৃণ করে:

ত্বক মসৃণ করতে চা বেশ উপকারি। ত্বকের র‍্যাশ, শুষ্কতা, খসখসে ভাব, দাগ দূর করে। নিয়মিত মুখে টি-ব্যাগ ব্যবহার করলে উপকার পাওয়া যায়।

মুখ পরিষ্কার করে:

চা’য়ে বেশি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। এটা ত্বক পরিষ্কার করে এবং ত্বকে পুষ্টি প্রদান করে। কিছুটা চা পাতা নিয়ে ফোটান। এরপর বেটে ঘন মিশ্রণ তৈরি করুন। ঠাণ্ডা করে মাস্ক হিসাবে মুখে লাগান আর পার্থক্য দেখুন!

চুল স্বাস্থ্যকর করে:

লিকার চা দিয়ে চুল ধুয়ে ফেললে চুলের স্বাস্থ্য ভালো হয়। চুল পড়া রোধ করতে চা পাতা পানিতে ফুটিয়ে ঠাণ্ডা করুন। তারপর সেটা চুলে, মাথার তালুতে স্প্রে করুন। চুল মজবুত এবং সুন্দর হবেই!

অর্থসূচক/এসএ/

 

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...