পাহাড়সম লক্ষ্য টপকাতে পারবে পাকিস্তান?

গল টেস্টে চতুর্থ দিনে আলোক স্বল্পতার কারমণ খেলা হয়নি ২৬ ওভার। এতে কিছুটা হলেও খুশি হওয়ার কথা পাকিস্তানি সমর্থকদের। কারণ ৫০৮ রানের লক্ষ্যমাত্রায় ব্যাটিং করছে পাকিস্তান। তাই এই ম্যাচে জয়ের চাইতে ড্রয়ের দিকেই বেশি মনযোগ থাকার কথা বাবর আজমের দলের। চতুর্থ দিন শেষে এক উইকেট হারিয়ে ৮৯ রান তোলেছে পাকিস্তান। শেষ দিনে জয়ের জন্য শ্রীলঙ্কার প্রয়োজন ৯ উইকেট আর পাকিস্তানের দরকার ৪১৯ রান।

৫ উইকেটে ১৭৬ রান নিয়ে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করে শ্রীলঙ্কা। আগের দিনের অপরাজিত দুই ব্যাটার দিমুথ করুণারত্নে এবং ধানাঞ্জয়া ডি সিলভা সকালে দারুণ শুরু করেন। ৬১ রান করা করুণারত্নেকে সাজঘরে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙ্গেন নোমান আলি। এরপর দুনিথ ওয়েলালাগেও দারুণ ব্যাটিং করেছেন। তার ব্যাট থেকে এসেছে ১৮ রান। এরপর উইকেটে এসে প্রথম ইনিংসের মতোই দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন রমেশ মেন্ডিস। এই টেস্টে ব্যাটিং-বোলিংয়ে উজ্জ্বল এই স্পিনার। তার ব্যাট থেকে এসেছে অপরাজিত ৪৫ রান।

লঙ্কানদের এই বড় সংগ্রহের পথে বড় অবদান রেখেছেন ধানাঞ্জয়া। রান আউট হয়ে সাজঘরে ফেরার আগে সেঞ্চুরি তোলে নিয়েছেন এই অলরাউন্ডার। তার ব্যাট থেকে এসেছে ১০৯ রান। ৯১ ওভার ৫ বলে ৮ উইকেট হারিয়ে ৩৬০ রান তোলে ইনিংস ডিক্লেয়ার করেছে লঙ্কানরা। পাকিস্তানের হয়ে ৪৪ রানে ২ উইকেট শিকার করেছেন নাসিম শাহ।

৫০৮ রানের লক্ষ্যমাত্রায় ব্যাটিং করতে নেমে শুরুটা ভালো করেছিল পাকিস্তান। কিন্তু উইকেটে থিতু হয়েও ইনিংস বড় করেত পারেননি ওপেনার আব্দুল্লাহ শফিক। তার ব্যাট থেকে এসেছে ১৬ রান। এরপর দিনের বাকিটা সময় নিরাপদে কাটিয়েছেন ইমাম উল হক এবং বাবর আজম। এক উইকেট হারিয়ে ৮৯ রানে দিন শেষ করেছে পাকিস্তান। লঙ্কানদের হয়ে একমাত্র উইকেটটি শিকার করেছেন প্রবাথ জয়সুরিয়া। শেষ দিনে জয়ের জন্য শ্রীলঙ্কার প্রয়োজন ৯ উইকেট আর পাকিস্তানের দরকার ৪১৯ রান।

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...