মিয়ানমারের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলা চলবে: আইসিজে

রোহিঙ্গাদের উপর মিয়ানমার সরকারের গণহত্যার অভিযোগে করা মামলা চলতে কোনো বাধা নেই বলে রায় দিয়েছে জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত- আন্তর্জাতিক বিচার আদালত (আইসিজে)৷

নেদারল্যান্ডসের অবস্থিত ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিসে (আইসিজে) মিয়ানমারের বিরুদ্ধে করা গাম্বিয়ার মামলার বিচারকার্য অব্যাহত থাকবে৷ আইসিজে সভাপতি জোন ডনেহু জানিয়েছেন, গাম্বিয়ার আবেদনের প্রক্রিয়া এগিয়ে নেয়ার আইনগত এখতিয়ার এই ট্রাইব্যুনালের রয়েছে৷ এই বিষয়ে একমত হয়েছেন ট্রাইব্যুনালের বিচারকরা৷

তিন বছর আগে করা মামলায় মিয়ানমারের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর ২০১৭ সালে গণহত্যা চালানোর অভিযোগ আনে গাম্বিয়া৷ নেদারল্যান্ডসের হেগ শহরের পিস প্যালেসে ২০১৯ সালের ১০ থেকে ১২ ডিসেম্বর মামলাটির শুনানি হয়৷ শুনানিতে গাম্বিয়ার নেতৃত্বে ছিলেন সে দেশের বিচারমন্ত্রী আবু বকর মারি তামবাদু আর মিয়ানমারের নেতৃত্বে ছিলেন তখনকার দেশটির সরকারের প্রতিনিধি নোবেলজয়ী নেত্রী অং সান সুচি৷

শুনানিতে অংশ নিয়ে মিয়ানমার গণহত্যার অভিযোগ অস্বীকারের পাশাপাশি আদালতে এই মামলা চলতে পারে না বলে দাবি করে এসেছে৷ তাদের যুক্তি,গাম্বিয়া রাষ্ট্র হিসেবে নয় ৫৭ দেশের জোট অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশন-ওআইসি এর ‘ছায়া’ হয়ে এই মামলা করেছে৷ যেখানে আইসিজে এর নিয়ম অনুযায়ী শুধু রাষ্ট্রই মামলা করতে পারে, কোনো জোট নয়৷

মিয়ানমারের আরেকটি যুক্তি ছিল গণহত্যার অভিযোগে গাম্বিয়া সরাসরি কোন পক্ষে যুক্ত নয়৷ সেইসঙ্গে মিয়ানমার নিজেরাও জাতিসংঘের গণহত্যা কনভেনশন সম্পূর্ণ না মানায় আদালতের এই মামলা চালানোর এখতিয়ার নেই৷ তবে আইসিজে এর বিচারকরা মিয়ানমারের যুক্তিগুলো প্রত্যাখ্যান করেছেন৷ এক্ষেত্রে গাম্বিয়ার দেয়া যুক্তিগুলো গ্রহণ করে মামলা চলমান রাখার বিষয়ে তারা একমত হয়েছেন৷ শুক্রবার এই রায় আসে দীর্ঘ শুনানির পরে৷

এর আগে ২০২০ সালে আইসিজে-তে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে করা মামলায় গাম্বিয়াকে সহায়তা করার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে ক্যানাডা ও নেদারল্যান্ডস৷ রোহিঙ্গাদের উপর মিয়ানমারে চালানো সহিংসতাকে গত মার্চে গণহত্যা হিসেবে অভিহিত করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন৷ সূত্র: ডিডাব্লিউ, এএফপি

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...