কাশ্মীরের পুলিৎজার জয়ী সাংবাদিককে বিদেশ যেতে দেয়নি ভারত

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলিৎজার পুরস্কারজয়ী ফটোসাংবাদিক সানা ইরশাদ মাত্তু-কে বিদেশ ভ্রমণে যেতে দেয়নি নয়াদিল্লি। তবে কোনো বৈধ কারণ উপস্থাপন করতে পারেনি অভিবাসন কর্তৃপক্ষ।

ঐ সাংবাদিক গণমাধ্যমকে বলেন, একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন ও আলোকচিত্র প্রদর্শনীর জন্য গতকাল শনিবার নয়াদিল্লি থেকে প্যারিসে যাওয়ার কথা ছিল তার। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের আরও তিন কর্মীর পাশাপাশি পুলিৎজার পেয়েছিলেন শ্রীনগরের বাসিন্দা মাত্তু। ভারতে কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে তাদের তোলা ছবিগুলোর জন্য এ স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

২৮ বছর বয়সী এই সাংবাদিক বলেন, ‘শনিবার বিকেলে আমার ফ্লাইট ছিল। ইমিগ্রেশনের সময় আমাকে একপাশে সরিয়ে রাখা হয়। তিন ঘণ্টা অপেক্ষা করতে বলা হয় আমাকে। কর্মকর্তাদের কাছে আমি বারবার এর কারণ জানতে চাচ্ছিলাম। ততক্ষণে নির্ধারিত ফ্লাইটটি আমাকে রেখেই চলে গেছে।’

সানা মাত্তু বলেন, ভারতীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে তিনি বিদেশে যেতে পারবেন না। তবে এ ব্যাপারে কোনো ব্যাখ্যা দেওয়া হয়নি। আমি খুব হতাশ হয়েছি। দীর্ঘদিন ধরে এ সুযোগের অপেক্ষায় ছিলাম।

মাত্তু তার বাতিল হয়ে যাওয়া টিকিট ও পাসপোর্টের ছবি টুইটারে শেয়ার করেছেন। সানা মাত্তু তার বিভিন্ন ছবিতে কাশ্মীরিদের প্রতিদিনকার বাস্তব জীবনচিত্রও তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন।

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...