আইপিএলের প্রতি ম্যাচের জন্য ১১২ কোটি টাকা চায় বিসিসিআই

সময় যত বাড়ছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) জনপ্রিয়তা ততই বাড়ছে। সংশয় নেই এই মুহূর্তে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও আকর্ষণীয় ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টের নাম আইপিএল। জনপ্রিয়তা বাড়ার সঙ্গে বাড়ছে ভারতের এই টুর্নামেন্টের আয়ও। আইপিএলের আয়ের বড় একটি অংশ আসে সম্প্রচার সত্ব থেকে।

স্টার ইন্ডিয়ার সঙ্গে চুক্তি শেষ হওয়ায় নতুন সম্প্রচারক প্রতিষ্ঠান খুঁজছে বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)। যেখানে পরবর্তী চক্রে প্রতিটি ম্যাচের জন্য সম্প্রচারক প্রতিষ্ঠানের কাছে ১০০ কোটি রুপি দাবি করেছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। বাংলাদেশি টাকায় যার পরিমাণ ১১২ কোটি। এমন প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ক্রিকবাজ।

২০১৭ সালে স্টার ইন্ডিয়ার সঙ্গে পাঁচবছরের জন্য চুক্তি করেছিল বিসিসিআই। যেখানে ম্যাচ প্রতি ৯০ লাখ ডলার পেয়েছিল তারা। স্টার ইন্ডিয়ার সঙ্গে চুক্তি পর বিশ্বের চতুর্থ দামি লিগে পরিণত হয়েছিল আইপিএল। তবে এবারের চাওয়া পূরণ হলে দুইয়ে উঠে আসবে টুর্নামেন্টটি। পেছনে ফেলবে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ (ইপিএল) ও মেজর লিগ বেসবল (এমবিএল) মতো টুর্নামেন্টকে। প্রতিটি ম্যাচের জন্য ১ কোটি ১০ লাখ ডলার আয় করে ইপিএল। এমবিএলের আয়ের পরিমাণটাও কাছাকাছি। এদিকে সবার উপরে থাকা ন্যাশনাল ফুটবল লিগের (এনএফএল) আয় ১ কোটি ৭০ লাখ ডলার।

এ প্রসঙ্গে বিসিসিআইয়ের সচিব জয় শাহ বলেন, ‘এনএফএলে ম্যাচপ্রতি সম্প্রচারকের খরচ হয় ১ কোটি ৭০ লাখ ডলার। এটা খেলাধুলার যেকোনো লিগের জন্য সর্বোচ্চ। ১ কোটি ১০ লাখ টাকা আয় নিয়ে এরপর আছে ইপিএল। এমবিএলের খরচও এর কাছাকাছিই। আমরা শেষ পাঁচ বছরের চক্রে প্রতি আইপিএল ম্যাচে ৯০ লাখ ডলার পেয়েছি। এবার প্রতি আইপিএল ম্যাচের জন্য বিসিসিআই ন্যূনতম ভিত্তি মূল্য নির্ধারণ করেছে ১ কোটি ২০ লাখ ডলার। তখন শুধু এনএফএলের পেছনে থাকব আমরা। বৈশ্বিক পরিমণ্ডলে এটা হবে ক্রিকেটের জন্য বড় এক লাফ।’

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...