বরাদ্দ বেড়েছে দুদকে

দুর্নীতি দমন ও প্রতিরোধ কার্যক্রম জোরদার করতে বিগত বছরের তুলনায় এবারের বাজেটে বরাদ্দ বৃদ্ধি করা হয়েছে। এছাড়া নতুন নতুন এলাকায় দুর্নীতি দমন ও প্রতিরোধ কার্যক্রম পরিচালনার তাগিদ দেওয়া হয়েছে প্রস্তাবিত বাজেটে।

এবারের বাজেটে বলা হয়, দেশব্যাপী দুর্নীতি প্রতিরোধ ও দমনে দুর্নীতির অস্পষ্ট এলাকাসমূহ শনাক্ত করে সেগুলো দুর্নীতি দমন কর্মসূচির আওতাভুক্ত করতে হবে।

প্রস্তাবিত বাজেটে বলা হয়, দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চলমান কার্যক্রম জোরদার করতে কমিশনের গোয়েন্দা ইউনিটের কার্যক্রম সম্প্রসারণ করা হবে। পর্যায়ক্রমে সব জেলা কার্যালয়সমূহেও ইউনিটের তৎপরতা বৃদ্ধি করা হবে।

দুর্নীতি প্রতিরোধ কর্মসূচির আলোকে গণসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সমাজের সৎ ও স্বচ্ছ ব্যক্তিদের নিয়ে দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে ‘দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি’ গঠন করা হয়েছে। এই কমিটির কার্যক্রম আরও জোরদার করা হবে।

এছাড়া দুদকে ২৮০ জন জনবল নিয়োগের কার্যক্রম চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। দুদককে আরও শক্তিশালী করার লক্ষ্যে কমিশনের সামগ্রিক কার্যক্রমকে অটোমেশনের আওতায় আনা হবে।

অর্থসূচক/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...