পুঁজিবাজারে গতি ফেরাতে অর্থমন্ত্রীর নানা নির্দেশনা

টানা দর পতনে কাবু পুঁজিবাজারে গতি ফেরাতে সংশ্লিষ্টদের নানা নির্দেশনা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আহম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেছেন, দেশের অর্থনীতি ভাল পারফর্ম করছে। এ অবস্থায় পুঁজিবাজার খারাপ হতে পারে না।

আজ রোববার (২২ মে) অর্থমন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে তিনি পুঁজিবাজার নিয়ে কথা বলেন। বৈঠকে তিনি বাজারকে স্বাভাবিক অবস্থায় আনতে বেশ কিছু নির্দেশনা দেন।

বৈঠক সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

আর্থিক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, অর্থসচিব আব্দুর রউফ তালুকদার এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব শেখ মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ আলোচিত বেঠকে উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র অনুসারে, অর্থমন্ত্রী রাষ্ট্রায়ত্ত বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান আইসিবির বিনিয়োগ সক্ষমতা বাড়াতে এই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে কোনো ব্যাংকের অর্থ পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ হয়ে থাকলে তা আলোচিত ব্যাংকের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ (Exposure to Capital Market)  হিসেবে গণ্য না করার নির্দেশ দেন। অর্থাৎ আইসিবিকে দেওয়া ঋণের অর্থ যদি পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করা হয় তাহলে ওই ঋণের অর্থ সংশ্লিষ্ট ব্যাংকটির পুঁজিবাজার এক্সপোজারের বাইরে রাখতে হবে।

অন্যদিকে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের জন্য আইসিবিকে দেয়া ১৫৩ কোটি টাকার যে তহবিলের মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছিল, সেটির মেয়াদ বাড়াতে বলেছেন অর্থমন্ত্রী। পাশাপাশি তহবিলের আকারও বাড়ানো হবে। এটি বাড়িয়ে ৩০০ কোটি টাকায় উন্নীত করার নির্দেশ নিয়েছেন মন্ত্রী।

পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতা বজায় রাখা ও এর উন্নয়নে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি এবং আর্থিক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সমন্বয়ের তাগিদ দেন মুস্তফা কামাল। তিনি প্রতিষ।ঠান দুটিকে সমন্বয় করে সব কাজ করার নির্দেশ দেন।

বৈঠকে বাজার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে বেশ কিছু দিকনির্দেশনা দেন মন্ত্রী। তিনি পরিষ্কার করে বলেন, করোনা মহামারির পর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের মধ্যেও বাংলাদেশের অর্থনীতি মজবুত ভিত্তির ওপর দাঁড়িয়ে আছে। এ অবস্থায় পুঁজিবাজারের খারাপ অবস্থা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। যে করেই হোক বাজারকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে হবে। একটি সুন্দর স্থিতিশীল বাজারে পরিণত করতে হবে।

 

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...