‘ভুল বোঝাবুঝি’তে র‌্যাব-পুলিশ হাতাহাতি, আহত ৪

ফেনীর পরশুরামে পুলিশের সঙ্গে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদস্যদের ‘হাতাহাতি’ ঘটনা ঘটেছে। এতে পুলিশের চার সদস্যের আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহতদের মধ্যে দুজন পরশুরাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

মঙ্গলবার রাতে পরশুরাম ডাকবাংলো মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। সংশ্লিষ্ট দুই আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, পরিচয় নিয়ে ভুল বোঝাবুঝির কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে। আহতরা হলেন- পরশুরাম থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) রেজাউল ও মো. ইব্রাহিম, পুলিশ সদস্য নুর নবী ও মাহবুব।

পুলিশ ও র‌্যাব সূত্র জানায়, মাইক্রোবাসে করে মাদক পাচার হচ্ছে এমন সংবাদ পেয়ে সাদা পোশাকে ডাকবাংলো মোড়ে অবস্থান নেয় পরশুরাম মডেল থানা পুলিশের একটি দল। এ সময় একটি মাইক্রোবাস থামিয়ে ভেতরে থাকা যাত্রীদের তল্লাশি করতে চান পুলিশ সদস্যেরা। এতে বাধা দেন যাত্রীবেশে থাকা র‌্যাব সদস্যেরা৷ পরে তাঁরা নিজেদের র‌্যাব সদস্য বলে পরিচয় দিলে পুলিশের সন্দেহ হয়। একইভাবে পুলিশ পরিচয় জানতে পেরে যাত্রীবেশে থাকা র‌্যাব সদস্যেরা সন্দেহ প্রকাশ করেন। পরিচয় নিয়ে তর্কাতর্কির একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়। এ সময় পরশুরাম মডেল থানার ৪ পুলিশ সদস্য আহত হন।

পরশুরাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (আরএমও) ইয়াছিন আলাউদ্দিন ডালিম জানান, আহতদের মধ্যে রেজাউল ও জিতু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। অন্য দুজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে৷

উভয়পক্ষের ভুল বোঝাবুঝির কারণেই এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানান র‌্যাব-৭-এর ফেনী ক্যাম্প অধিনায়ক স্কোয়াড্রন লিডার জাবের আল ইমরান৷ হাতাহাতির আগে উভয় পক্ষ আইডি কার্ড প্রদর্শন করলে ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটত বলেও জানান তিনি।

পরশুরাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম বলেন, কোনো হাতাহাতির ঘটনা ঘটেনি। তবে কিছুটা ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। র‌্যাব সদস্যরা থানায় আছেন। উভয়ের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি মিমাংশার চেষ্টা করছি।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...