ক্ষমতা নিবে না লঙ্কান সেনাবাহিনী

লঙ্কান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব কামাল গুনারত্নে বলেন, ‘যখন দেশে কোনো বিপজ্জনক পরিস্থিতি তৈরি হয়, তখন সমস্যা সমাধানে সেনাবাহিনীকে ক্ষমতা দেয়া হয়। তবে কখনই ভাববেন না যে, আমরা ক্ষমতা নিচ্ছি। সেনাবাহিনীর এই ধরনের কোনো মনোভাব নেই।’

বুধবার (১১ মে) সার্বিক পরিস্থিতিতে এক সংবাদ সম্মেলনে সচিব জানান, সেনাবাহিনীর ক্ষমতা গ্রহণের সম্ভাবনা নেই। খবরে বার্তা সংস্থা এএফপি

চলমান সংকটে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ নানা মাধ্যমেই সেনাবাহিনীর ক্ষমতা গ্রহণের পক্ষে মত দিচ্ছেন অনেকে। তারা বলছেন, সমাধান এখন তাদের হাতেই। এ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা সেনাদের হাতে যাওয়ার নজির নেই। তবে ১৯৬২ সালে একবার সেনা অভ্যুত্থানের চেষ্টা হলেও পরে সে চেষ্টা ব্যর্থ হয়।

টানা কয়েক দিন ধরে চলা সরকারবিরোধী আন্দোলন সোমবারে উত্তাল হলে বিক্ষুব্ধদের ওপর হামলা চালায় সরকার সমর্থকরা। দু’পক্ষের সংঘর্ষে শতাধিক মানুষ আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। রাজধানী কলম্বোর কাছে নিত্তামবুয়া এলাকায় নিহত হন ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের এমপি অমরাকীর্থি আথুকোরালা। এ ছাড়া এক পুলিশ সদস্যসহ নিহত হন আরও অন্তত আটজন। খবর দ্য ট্রিবিউন

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে পুলিশ। প্রথমে রাজধানী কলম্বোতে এবং পরে পুরো দেশে জারি করা হয়েছে কারফিউ। তবে নির্দেশনা অমান্য করেই মাঠে আছে আন্দোলনকারীরা।

অর্থসূচক/এইচডি/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...