নাটোরে পেঁয়াজের দাম বাড়লেও লোকসানে কৃষক

পবিত্র ঈদুল ফিতরে সরবরাহ কিছুটা কমে আসায় নাটোরের পাইকারি পেঁয়াজের হাটে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।

বিশেষ করে নাটোর জেলার বৃহত্তম হাট নলডাঙ্গার হাটে ঘুরে দেখা গেছে প্রতি কেজি পেঁয়াজের মূল্য ৫ থেকে ৭ টাকা বৃদ্ধি পেয়ে ২০ থেকে ২৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

তবে কৃষকরা এখনও বলছেন এ দামেও তারা লোকসান গুনছেন। তারা বলছেন প্রতি কেজি ২৫ টাকা করে বিক্রি করলেও তাদের ৫ টাকা করে লোকসান গুনতে হচ্ছে। তাদের দাবী প্রতি কেজি পেঁয়াজ উৎপাদনে তাদের খরচ হয়েছে প্রায় ৩০ টাকা ।

এছাড়াও, চলতি মৌসুমে মার্চ মাসের শেষ সপ্তাহের থেকে নাটোর জেলার বাজারে চারা জাতের পেঁয়াজের বাজারজাত শুরু হয়। সে সময় কৃষকরা প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৫ থেকে ১০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করেন। কেজি প্রতি ৩০ টাকা খরচ করে ১০ টাকায় বিক্রয়ের ফলে কৃষকরা একটি বড় ধরণের একটি লোকসান করেছেন বলে কৃষকরা দাবী করছেন।

কৃষকরা আরও জানান, প্রতি বছর তারা উৎপাদন বৃদ্ধি করে আসছেন, এর ফলে নাটোর জেলায় গত ২ বছরে উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় ২৫ হাজার মেট্রিকটন । কিন্তু এখন পেঁয়াজ নিয়ে বাজারে এসে তাদের বিঘা প্রতি লোকসান গুণতে হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা। এমতাবস্থায় তারা তাদের ঋণ পরিশোধের কথা ভেবেও হিমসিম খাচ্ছেন।

এছাড়াও পেঁয়াজের দাম নির্ধারণের জন্য কৃষি বিপণন অধিদপ্তর থাকলেও, কৃষকদের দাবী সরকারের এ সংস্থা বাজার নিয়ন্ত্রণে কিংবা ন্যায্য দাম নির্ধারণে কোন রকমের কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারেনি।

গত বছর মে মাসের প্রথম সপ্তাহে কৃষি বিপণন অধিদপ্তর প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম ৪০ টাকা নির্ধারণ করে দিলেও, এ বছর তাদের সেরকম কোন উদ্যোগ ও কার্যক্রম না দেখে বড় ধরণের হতাশায় রয়েছেন কৃষকরা।

কৃষকরা আরও বলছেন যে, তাদের উৎপাদিত পেঁয়াজের যদি সঠিক মূল্য না পান তবে পরবর্তিতে তারা পেঁয়াজ উৎপাদনের পরিমাণ কমিয়ে দিবেন।

অন্যদিকে কৃষি বিভাগ জানিয়েছে চলতি বছর নাটোর জেলায় পেঁয়াজ উৎপাদনের পরিমাণ প্রায় ৮০ হাজার মেট্রিকটন। যার মাঝে শুধু নলডাঙ্গা উপজেলার তিনটি ইউনিয়নেই উৎপাদন হয়েছে প্রায় ৫০ হাজার মেট্রিকটন পেঁয়াজ। কৃষকরা বলছেন এতো উৎপাদনের কারণেই বড় রকমের ক্ষতির মুখে পরছেন তারা।

রোজা এবং ঈদের কেনাকাটার ফলে বাজারে পেঁয়াজের কিছুটা সরবরাহ কমে আসার ফলে দাম বৃদ্ধি পেলেও আগামীতে আবারও সরবরাহ বাড়লে কমে আসতে পারে পেঁয়াজের মূল্য। এতে আবারও বড় লোকসানে পরার ভয় কৃষকদের মনে।

অর্থসূচক/এমআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...