এক রাজ্যে হবে পুরো আইপিএল!

বিশ্বজুড়ে হুট করেই বেড়ে গিয়েছে মরণব্যাধি করোনাভাইরাসের প্রকোপ। এমনকি নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন ছড়িয়ে পড়েছে পুরো ভারতজুড়ে। ইতোমধ্যে মুম্বাই এবং দিল্লীতে প্রকোপ আকার ধারণ করতে শুরু করেছে ভাইরাসটি। এই অবস্থায় শঙ্কা জেগেছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) পঞ্চদশ আসর নিয়ে।

মাঝে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসায় বিসিসিআই ঘোষণা দিয়েছিল, ১৫তম আসর আয়োজিত হবে ভারতেই। তবে বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় দেশটিকে পড়তে হয়েছে নতুন চ্যালেঞ্জের মুখে। যে কারণে বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই) আইপিএল আয়োজন বিকল্প পথ খুঁজতে শুরু করেছে।

বিসিসিআই পরিকল্পনা করছে শুধু একটি রাজ্যে আইপিএল আয়োজনের। সেই দৌড়ে এগিয়ে আছে মহারাষ্ট্র। কারণ মহারাষ্ট্রে উন্নতমানের চারটি স্টেডিয়াম রয়েছে। ভারতীয় বোর্ড চাওয়া, করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হলে এই চার ভেন্যুতেই পুরো আইপিএল আয়োজন হোক!

গেল কয়েক মৌসুম ৮ দল নিয়ে অনুষ্ঠিত হলেও এবারের আসরে বেড়েছে দল সংখ্যা। ৮ থেকে বেড়ে তা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১০টিতে। এমনকি বেড়েছে ম্যাচের সংখ্যাও। তারপরও কোভিডের এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় দেশের মাটিতেই আইপিএল আয়োজন করতে চায় বিসিসিআই।

এক রাজ্য অর্থাৎ মহারাষ্ট্রে খেলা হলে ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম, ডি ওয়াই পাতিল স্টেডিয়াম, ব্রেবোর্ন, মহারাষ্ট্র ক্রিকেট এসোসিয়েশন ও ডি ওয়াই পাতিল, এই চার ভেন্যুতেই হবে আইপিএলের সব ম্যাচ। তবে সব এখনও আলোচনার পর্যায়ে রয়েছে, এমনকি ফ্র্যাঞ্চাইজিদের পক্ষ থেকেও সবুজ সংকেত পাওয়ার বিষয় রয়েছে।

২০২০ সালে করোনাভাইরাসের কারণে নির্ধারিত সময়ে আইপিএল আয়োজন সম্ভব হয়নি। তবে সেই বছরের সেপ্টেম্বরে আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত হয় আইপিএলের ১৩তম আসর। ১৪তম আসর নির্ধারিত সময়ে ভারতে শুরু হলেও করোনার থাবায় টুর্নামেন্টটি মাঝপথে স্থগিত হয়ে যায়।

পরবর্তীতে ভেন্যু বদলে আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত হয় টুর্নামেন্টের পরবর্তী অংশ। এবার করোনাভাইরাসের প্রভাব থাকলেও টানা তৃতীয়বার দেশের বাইরে আইপিএল আয়োজন করতে চাইছে না বিসিসিআই। এই অবস্থায় এক রাজ্য মহারাষ্ট্রকে প্রাধান্য দিয়েই পরিকল্পনা করছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। ১৫তম আসরে নতুন দুই ফ্র্যাঞ্চাইজি হচ্ছে আহমেদাবাদ ও লক্ষ্ণৌ। ইতোমধ্যে বোর্ডের কাছ থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে এই দুই দলের ফ্র্যাঞ্চাইজি। ১০ দলের অংশগ্রহণে এবারের নিলাম অনুষ্ঠিত হবে ১২ ও ১৩ ফেব্রুয়ারি, ব্যাঙ্গালোরে। সব ঠিক থাকলে আইপিএল মাঠে গড়াবে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই।

 

অর্থসূচক/এএইচআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...