শিক্ষা কর্মকর্তাকে থাপ্পড় দেওয়ায় মেয়রের বিরুদ্ধে মামলা

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে শিক্ষা কর্মকর্তাকে থাপ্পড় দেওয়ার ঘটনায় পৌরসভার মেয়র মো. শাহনেওয়াজ শাহানশাহর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৬ ডিসেম্বর) রাতে ভুক্তভোগী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মেহের উল্লাহ বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ মহব্বত কবীর মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে দায়িত্ব পালনকালে শিক্ষা কর্মকর্তাকে থাপ্পড় ও লাঞ্ছিতের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। মামলায় মেয়রকে একমাত্র আসামি করা হয়েছে। তাকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে তাকে গ্রেফতার করা হবে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দেওয়ানগঞ্জ সরকারি হাইস্কুল মাঠে উপজেলা প্রশাসন বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে উপস্থাপকের দায়িত্ব পান ওই মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মেহের উল্লাহ। ভোর থেকে ওই মাঠের শহীদ মিনারে উপজেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করছিলেন। এ সময় দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো. শাহনেওয়াজ শাহানশাহ ফুল নিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে আসেন। উপস্থাপক শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য মাইকে প্রশাসন ও বিভিন্ন সংগঠনের নাম ঘোষণা করছিলেন। পৌরসভার নাম ৫ নম্বরে ঘোষণা করায় মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন এবং থাপ্পড় মারেন মেয়র। সবার সামনে এই ঘটনা ঘটলেও প্রতিবাদ করেননি কেউ।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মেহের উল্লাহ বলেন, জেলা প্রশাসক মোর্শেদা জামানের পরামর্শ অনুযায়ী থানায় মামলা করেছি। আসামির গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এ ব্যাপারে মেয়র মো. শাহনেওয়াজ শাহানশাহ বলেন, মামলার বিষয়টি শুনেছি। তবে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে শিক্ষা কর্মকর্তা মাইকে নাম ঘোষণা করছিলেন। প্রটোকল অনুযায়ী পৌরসভার নাম ঘোষণা হবে ৪ নম্বরে। কিন্তু তিনি পৌরসভার নাম ঘোষণা করেন উপজেলা অফিসার্স ক্লাবের পরে ৮ নম্বরে। প্রটোকল অনুযায়ী পৌরসভার নাম ঘোষণা না করে তিনি আমাদের অপমান করেছেন। তাই ওই শিক্ষা কর্মকর্তার সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়েছে। তাকে গালিগালাজ করেছি ঠিক কিন্তু গায়ে হাত তুলিনি।

অর্থসূচক/এএইচআর

 

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...