আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমলে সেভাবেই ব্যবস্থা নেবো: অর্থমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমলে সেভাবেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বুধবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে অর্থনৈতিক বিষয়ক সংক্রান্ত ও সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমছে, জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী বলেছেন প্রস্তাব দিলে বিবেচনা করতে পারেন। এ বিষয়ে আপনার মতামত কী? এর জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, প্রতিমন্ত্রী যেটা বলেছেন সেটিই আমাদের সবার বক্তব্য। এখনো এটি ফেক্সিবল স্টেজে আছে। কখনো বাড়ছে, আবার কমছে। যখন স্ট্যাবল কন্ডিশনে আসবে, আমার বিশ্বাস প্রতিমন্ত্রী যা বলেছেন আশা করি সেভাবেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিদেশে টাকা পাচারকারীদের খোঁজ পেতে আপনার হাতে কি কোনো ম্যাকানিজম নেই? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সংসদে কথা বলার আগ থেকে আমি বলেছিলাম, আমাকে সুস্পষ্টভাবে মানি লন্ডারিংয়ের সঙ্গে জড়িতদের তথ্য জানাতে। সেভাবে না পেলেও পত্রপত্রিকায় কিছু নাম পেয়েছি। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক ও সংশ্লিষ্ট যারা আছে তারা কাজ করছে। আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি। আইনগত প্রক্রিয়ায় যাকে যা শাস্তি দেওয়ার সে শাস্তি সে পাচ্ছে।

‘গত দু-তিন বছরে কে কত শাস্তি পেয়েছে এগুলো আপনাদের সামনে তুলে ধরা হবে। একদিন আমি আপনাদের মন্ত্রণালয়ে নিমন্ত্রণ করবো এবং আপনাদের কাছে এগুলো তুলে ধরবো, আমরা কী ব্যবস্থা নিয়েছি এবং ব্যবস্থার প্রেক্ষিতে অগ্রগতি কতটুকু হয়েছে। আমি কিন্তু কিছু ব্যবস্থা নিতে পারবো না। ব্যবস্থা নেবে আমাদের আইন বিভাগ থেকে শুরু যারা আছে তারা।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমার তো কোনো নিজস্ব মেকানিজম নেই। মেকানিজম হলো সরকারের টাকা মেকানিজম। দেশের সকল মানুষের টাকা মেকানিজম। আমার আছে আইন। আমাদের আইনের জন্য আমাদের যে ব্যবস্থা সে ব্যবস্থা আমরা নিচ্ছি। কেউ যদি দুর্নীতি করে, কেউ যদি পাচার করে, মামলা করা হয় এবং তাদের জেলে নেওয়া হয়, সাজা দেওয়া হয়। কোর্ট যা মনে করবে সেভাবে বিচার ব্যবস্থা চলছে।

ওমিক্রন বিশ্ব অর্থনীতিকে দুশ্চিন্তায় ফেলে দিয়েছে, এটা মোকাবিলায় আপনি কোনো চিন্তা করছেন কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা এখনো সংক্রমিত হইনি। আগে যেভাবে করোনা দেখা দিয়েছিল সবাইকে সঙ্গে নিয়ে মোকাবিলা করেছি। অর্থনীতির জন্য যা যা করণীয় সাধ্যানুযায়ী দেশের সকল মানুষকে অনেক সাপোর্ট দিয়ে গেছি। আমার মনে হয় এ ধরনের ঘটনা বাংলাদেশে ঘটবে না। সংক্রমণটা অতটা কঠোর নয়। আমরা এখনো জানি না কতে কঠোর হেবে। আমরা বিশ্বাস করবো আল্লার রহমতে আমাদের কোনো ক্ষতি করবে না। এ ধরনের কোনো বিপর্যয় আসে সরকার সব সময় প্রস্তুত এটাকে মোকাবিলা করার জন্য, দেশের জনগণকে সাহায্য করার জন্য।

অর্থসূচক/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...