এসএমই নেটওয়ার্কিং প্ল্যাটফর্ম চালু করছে ব্র্যাক ব্যাংক ও গ্লোবাল লিংকার

ব্র্যাক ব্যাংক ও গ্লোবাললিংকার ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের (এসএমই) জন্য বাংলাদেশের প্রথম নেটওয়ার্কিং প্ল্যাটফর্ম চালু করতে সম্মত হয়েছে। এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে এসএমই উদ্যোক্তারা একে অন্যের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন এবং ব্যবসায় আরও সমৃদ্ধশালী হতে পারবেন। গ্লোবাললিংকার একটি শীর্ষস্থানীয় এসএমই বিজনেস নেটওয়ার্কিং ও এনয়েবেলমেন্ট প্ল্যাটফর্ম।

ভারত ভিত্তিক গ্লোবাললিংকার ব্র্যাক ব্যাংকের এসএমই গ্রাহকদের আইটি অবকাঠামো স্থাপনসহ বিশ্বব্যাপী চার লাখের বেশি এসএমই প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ স্থাপনের সুযোগ সৃষ্টি করবে। প্রোডাক্ট ক্যাটালগ ডিজিটাইজেশন ও পেমেন্ট সিস্টেম ইন্টিগ্রেশন করে এসএমই প্রতিষ্ঠানগুলোকে ই-কমার্সের জন্য উপযোগী করতে সাহায্য করবে গ্লোবাললিংকার।

ব্র্যাক ব্যাংকের সাথে কো-ব্র্যান্ডেড এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের সাহায্যে চার লাখ এসএমই উদ্যোক্তা পরস্পরের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করে ভ্যালু চেইন শক্তিশালী করতে পারবে। এর ফলে অর্থনৈতিক প্রতিবন্ধকতা মোকাবিলা করে সামনে এগিয়ে যেতে পারবে। প্যাটেন্টেড ডিজিটাল বিজনেস ব্যবহার করা হবে। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করায় এসএমই প্রতিষ্ঠানসমূহকে সহজে খুঁজে পাওয়া যাবে। তাদের ই-কমার্স ব্যবসা চালুর পথ সুগম হবে।

মহামারীর সময় ব্র্যাক ব্যাংকের পরিচালিত এক জরিপে উঠে আসে যে, এসএমই’দের নিজেদের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করার জন্য একটি সলুশন প্রয়োজন, যাতে কোন দুর্যোগে ভালু চেইন বাধাগ্রস্ত না হয়। ব্র্যাক ব্যাংক মনে করে, গ্লোবাললিংকার এর প্ল্যাটফর্মের সাহায্যে শুধু ব্যাংকের এসএমই গ্রাহকদেরই নয়, পুরো দেশের এসএমই’দের সহায়তা করা যাবে।

এ উদ্যোগ সম্পর্কে ব্র্যাক ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও সেলিম আর. এফ. হোসেন বলেন, ‘এসএমই উদ্যোক্তাদেরকে অর্থনীতির মূলধারায় নিয়ে আসার প্রচেষ্টায় ব্র্যাক ব্যাংক সবসময়ই ভূমিকায় অগ্রগামী আছে। এই আর্থিক অন্তর্ভুক্তি কার্যক্রম ব্র্যাক ব্যাংক ও এর মালিকানা প্রতিষ্ঠান – ব্র্যাক – এর ভিশনের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ। গত ২০ বছর ধরে এই তৃণমূল পর্যায়ের উদ্যোক্তাদের অর্থায়ন করে আসছে ব্র্যাক ব্যাংক। ভ্যালু চেইন উন্নত করার মাধ্যমে কুটির শিল্প থেকে প্রতিষ্ঠিত বৃহৎ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে পরিণত হতে সাহায্য করে আসছে। গ্লোবাললিংকারের সাথে এ পার্টনারশিপের ফলে ব্র্যাক ব্যাংক শুধুমাত্র অর্থায়নে সীমাবদ্ধ না থেকে এসএমই’দের ডিজিটাল পরিমন্ডলে নিয়ে আসবে এবং তাদের সাথে সম্পর্ক আরও দৃঢ় করবে। আমরা মনে করি, এর ফলে এসএমই উদ্যোক্তারা দেশের বাইরেও বাজার সৃষ্টি ও প্রসার করতে পারবেন।’

গ্লোবাললিংকারের কো-ফাউন্ডার ও সিইও সামির ভাকিল বলেন, ‘সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ও ব্যবসার বিস্তৃতি বাড়িয়ে এসএমই’দের বড় বড় স্বপ্নগুলো বাস্তবে রূপ দিতেই গ্লোবাললিংকার এর প্ল্যাটফর্মটি চালু করা হয়।

ব্র্যাক ব্যাংকের সাথে পার্টনারশিপকে স্বাগত জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘এক প্ল্যাটফর্মের সাথে অন্যটির সংযুক্তি থাকার ফলে এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে ব্র্যাক ব্যাংকের কোন গ্রাহক তাৎক্ষণিকভাবে গ্লোবাললিংকারের চার লাখ এসএমই উদ্যোক্তার সাথে যোগাযোগ স্থাপন করতে পারবে। গ্লোবাললিংকার প্রক্সটেরার সাথে সংযুক্ত থাকায় এসএমই উদ্যোক্তারা প্রক্সটেরা’র ১০টি এসএমই বিজনেস-টু-বিজনেস প্ল্যাটফর্মের সাথে যুক্ত হতে পারবে।’

মনেটারি অথরিটি অব সিঙ্গাপুরের চিফ ফিনটেক অফিসার সুপেন্দু মোহান্তি বলেন, ‘এটি খুবই আশাব্যঞ্জক যে, এসএমই উদ্যোক্তাদের ক্ষমতায়ন করতে ব্র্যাক ব্যাংকের মত শীর্ষস্থানীয় একটি ব্যাংক গ্লোবাললিংকারের মত প্ল্যাটফর্মের সাথে পার্টনারশিপ করেছে।’

সিঙ্গাপুর ফিনটেক ফেস্টিভালকে সামনে রেখে সম্প্রতি ভার্চুয়াল মাধ্যমে ব্র্যাক ব্যাংক ও গ্লোবাললিংকারের চুক্তি স্বাক্ষর সম্পন্ন হয়।

অর্থসূচক/মৃত্তিকা সাহা/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...