ফের রিমান্ডে ইকবাল

কুমিল্লায় পূজা মণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় করা মামলায় প্রধান অভিযুক্ত ইকবালসহ চারজনের আরও তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বুধবার (৩ নভেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে কুমিল্লার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট চন্দন কান্তি নাথ এ আদেশ দেন।

দ্বিতীয় দফায় পাঁচদিনের রিমান্ড শেষে ওই চারজনকে দুপুর পৌনে ২টার দিকে আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় পাঁচদিনের রিমান্ড চাইলে আদালত তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তবে তাদের আপাতত কুমিল্লা কারাগারে পাঠানো হবে বলে জানা গেছে।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন ৯৯৯ নম্বরে পুলিশকে ফোন করা রেজাউল ইসলাম ইকরাম, দারোগা বাড়ি মাজার মসজিদের সহকারী খাদেম ফয়সাল ও হুমায়ুন কবির সানাউল্লাহ।

অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) কুমিল্লার পুলিশ সুপার (এসপি) খান মুহাম্মদ রেজওয়ান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, আসামিরা আপাতত কুমিল্লা কারাগারে থাকবে। রিমান্ডে থাকা গত ১২ দিনের তথ্য যাচাই-বাছাই করা হবে। প্রয়োজন হলে তাদের তিনদিনের রিমান্ডে নিয়ে আবারও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

এর আগে ২৩ অক্টোবর দুপুরে কুমিল্লার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মিথিলা জাহান নিপার আদালতে ইকবালসহ চারজনকে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ। শুনানি শেষে আদালত তাদের প্রত্যেকের সাতদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

সাতদিনের রিমান্ড শেষে ২৯ অক্টোবর বিকেল পৌনে ৩টায় তাদের কুমিল্লার আদালতে হাজির করে পুনরায় সাতদিনের রিমান্ড চাওয়া হয়। এ সময় আদালত পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মঙ্গলবার পাঁচদিনের রিমান্ড শেষে হয়।

২১ অক্টোবর রাত সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত এলাকার সুগন্ধা পয়েন্ট থেকে ইকবালকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পূজামণ্ডপ ভাঙচুরের ঘটনায় কুমিল্লার বিভিন্ন থানায় এ পর্যন্ত ১১টি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে কোতোয়ালি মডেল থানায় সাতটি, কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় দুটি এবং দাউদকান্দি ও দেবীদ্বার থানায় একটি করে মামলা হয়েছে। এসব মামলায় বুধবার (৩ নভেম্বর) পর্যন্ত মোট ৯১ জনকে গ্রেফতার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

অর্থসূচক/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...