ডেঙ্গুতে হাসপাতালে ভর্তি আরো ২৩৭ জন

0
111
ফাইল ছবি

করোনা মহামারির ভয়াবহ প্রকোপের মধ্যে বেড়েই চলেছে ডেঙ্গু জ্বরের প্রকোপ। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে ২৩৭ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছে। যা একদিনে দেশে ডেঙ্গু আক্রান্তের নতুন রেকর্ড। এর মধ্যে ঢাকায় নতুন ভর্তি রোগী ২১৮ জন।

রোববার (১ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের ডেঙ্গু বিষয়ক এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে নতুন করে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছেন আরো ২৩৭ জন। এর মধ্যে রয়েছেন ঢাকায় ২১৮ জন। আর ঢাকার বাইরের রয়েছেন ১৯ জন।

এতে আরো বলা হয়, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ৮৬২ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার ৪১টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ৮২৮ জন এবং অন্যান্য বিভাগে বর্তমানে সর্বমোট ৩৪ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন।

মহামারি করোনাভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে সরকার যখন হিমশিম খাচ্ছে তখন নতুন আতঙ্ক হিসেবে দেখা দিয়েছে ডেঙ্গু জ্বর। কয়েক দিন ধরে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা শুধু বাড়ছেই। সারাদেশে রোগটির তেমন প্রকোপ না থাকলেও রাজধানীবাসী এডিস মশাবাহী রোগটি নিয়ে বেশ চিন্তিত। ইতিমধ্যে সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে ডেঙ্গুবাহী এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

দেশের ইতিহাসে ২০১৯ সালে ডেঙ্গুর প্রকোপ ছিল সবচেয়ে বেশি। ওই বছর প্রথমবারের মতো ডেঙ্গু বিস্তৃত হয় ৬৪ জেলায়। সেসময় ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ছাড়ায় এবং এই রোগে আক্রান্ত হয়ে ১৪৮ জনের মৃত্যুর খবর জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। যদিও ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার হাসপাতাল ও চিকিৎসকদের কাছ থেকে আড়াইশ’র বেশি মানুষের এই রোগে মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

মাঝে করোনা প্রাদুর্ভাবের বছর ২০২০ সালে ডেঙ্গুর প্রকোপ কিছুটা কম ছিল। মোট এক হাজার ৪০৫ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হন। এদের মধ্যে সাতজন ডেঙ্গুতে মারা যান। এবার করোনার প্রকোপ গতবারের চেয়ে অনেক বেশি। এই অবস্থায় ডেঙ্গু পরিস্থিতি মারাত্মক আকার ধারণ করলে তা সামাল দেওয়া কঠিন হয়ে যাবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এছাড়া চলতি বছর ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ জুলাই বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা সর্বমোট দুই হাজার ৮৯৫ জন। একই সময়ে তাদের মধ্য থেকে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে ছাড়া পেয়েছেন দুই হাজার ২৯ জন। একই সঙ্গে রোগতত্ত্ব রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) ডেঙ্গু সন্দেহে চারটি মৃত্যুর তথ্য গবষেণাগারে পাঠানো হয়েছে।

অর্থসূচক/এএইচআর