হামাসের নজিরবিহীন রকেট হামলায় বিস্মিত ইসরায়েল

ইহুদিবাদী ইসরায়েলের নৃশংস আগ্রাসনের জবাবে ফিলিস্তিন থেকে রকেট হামলা চালানো হচ্ছে। আগ্রাসনের পাল্টা জবাব হিসেবে যে হারে ঝাঁকে ঝাঁকে রকেট হামলা হচ্ছে, তা দেখে বিস্মিত ইসরায়েল। দেশটির সেনাবাহিনী রোববার (১৬ মে) স্বীকার করেছে, এবারের সংঘাতে তারা ফিলিস্তিন থেকে সর্বোচ্চহারে রকেট হামলার মুখে পড়েছে।

গত সাত দিনে সর্বোচ্চ রকেট হামলার মুখোমুখি হয়েছে ইহুদিবাদী দেশটি। ইসরায়েলের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, গত সোমবার থেকে রোববার পর্যন্ত গাজা থেকে ৩ হাজার রকেট ছোড়া হয়েছে ইসরায়েলে।

ইসরায়েল সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা মেজর জেনারেল ওরি গোর্দিন জানান, ২০১৯ ও ২০০৬ সালে লেবাননের হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধেও এতো রকেট হামলা করা হয়নি।

ইসরায়েলের কমান্ডার একটি গ্রাফিকের মাধ্যমে রকেট হামলার অতীত ও বর্তমান চিত্র তুলে ধরে এসব তথ্য জানান।

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার ক্ষমতাসীন হামাস সোমবার পর্যন্ত ইসরাইলি ভূখণ্ড লক্ষ্য করে প্রায় তিন হাজার রকেট ছুড়েছে বলে জানান ইসরায়েলি এ মেজর।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর দাবি, আয়রন ডোমের মাধ্যমে তারা অধিকাংশ রকেট হামলা আকাশেই ঠেকিয়ে দিচ্ছে। তবে এবার গাজা থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে রকেট হামলার পরিপ্রেক্ষিতে আয়রন ডোমের দুর্বলতা সামনে আসছে। গাজা থেকে ছোড়া অনেক রকেট আয়রন ডোম ফাঁকি দিয়ে ইসরায়েলে আঘাত হানতে সক্ষম হয়েছে।

ইহুদিবাদী ইসরায়েল রোরবার সবচেয়ে ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে ফিলিস্তিনে। নারী-শিশুসহ এদিন ৪২ বেসামরিক ফিলিস্তিনি ইসরাইলের বর্বরোচিত বিমান হামলায় নিহত হয়েছেন।

আন্তর্জাতিক সব নিয়মনীতি লঙ্ঘন করে ইসরায়েলি বাহিনী রোববার গাজা সিটির আবাসিক এলাকায় ভয়াবহ বিমান হামলা চালিয়েছে। এতে সবচেয়ে বেশি প্রাণ হারিয়েছেন শিশু ও নারীরা।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, রোববারের হামলায় ১০ শিশু ও ১৬ নারীসহ ৪২ জন নিহত এবং অর্ধশতাধিক ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। হতাহতদের বেশিরভাগই শিশু।

২০০৬ সালে লেবাননের সশস্ত্র সংগঠন হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধে জড়ায় ইসরায়েল। ওই যুদ্ধে ১৯ দিনে হিজবুল্লাহ প্রায় ৪ হাজার ৫০০ রকেট হামলা চালায় ইসরায়েলে। হিজবুল্লাহর রকেট হামলায় তখন ইসরায়েলের জানমালের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। হিজবুল্লাহর সঙ্গে এই যুদ্ধের পরই ইসরায়েল একটি নতুন ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থা গড়ার বিষয়ে ঘোষণা দেয়। তারপরই তারা ‘আয়রন ডোম’ নামের বিশ্বের অত্যাধুনিক আকাশ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা গড়ে তোলে। ইসরায়েল ২০১১ সালে প্রথম ‘আয়রন ডোম’ মোতায়েন করে।

সূত্র: এএফপি।

অর্থসূচক/কেএসআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...