জামিনে বাড়ি ফিরলেন হাসপাতাল থেকে ‘পালানো’ ৭ করোনা রোগী

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
173

যশোর আড়াইশ’ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল থেকে ‘পালিয়ে যাওয়া’ সেই ১০ করোনা রোগীর মধ্যে সাতজন বাড়িতে ফিরেছেন।

দ্বিতীয় বারের পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ আসায় আজ সোমবার (১০ মে) সকালে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদেরকে ছাড়পত্র দেয়। এরপর পুলিশ তাদেরকে যশোর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করলে শুনানি শেষে বিচারক মাহাদী হাসান জামিন মঞ্জুর করেন।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পুলিশ সুপার পদোন্নতিপপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম জানান, হাসপাতালের রেডজোনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ করোনা পজিটিভ রোগী পালানোর ঘটনায় গত ৮ মে আদালতে মামলা করা হয়। পুলিশের করা ওই মামলায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে আদালত।

ওই ১০ রোগী হলেন- যশোর সদর উপজেলার পাঁচপাবাড়িয়া গ্রামের রবিউলের স্ত্রী ফাতেমা (১৯), একই গ্রামের একরামুল কবীরের স্ত্রী রুমা (৩০), যশোর শহরের বারান্দীপাড়া এলাকার বিশ্বনাথের স্ত্রী মনিমালা দত্ত (৪৯), যশোর শহরের ওয়াপদা গ্যারেজপাড়ার ভদ্র বিশ্বাসের ছেলে প্রদীপ বিশ্বাস (৩৭), সাতক্ষীরা আশাশুনি উপজেলার প্রতাপপাড়া গ্রামের জামাল হোসেনের ছেলে মিলন হোসেন (৩২), সাতক্ষীরা কালীগঞ্জ উপজেলার সোনাতলা গ্রামের মনোতোষ সর্দারের স্ত্রী শেফালী রানী (৪০), খুলনার পাইকগাছার ভামরাইল গ্রামের আহমদ সানার ছেলে আমিরুল সানা (৫২), খুলনার রূপসা চল এলাকার শের আলীর ছেলে সোহেল সরদার (১৭), খুলনা মহানগরের বিকে পূর্ব লেন এলাকার পুলিন কৃষ্ণ সরকারের ছেলে বিবেকানন্দ সরকার ও রাজবাড়ী সদর উপজেলার রামকান্তপুর গ্রামের আবদুল কুদ্দুসের মেয়ে নাসিমা আক্তার।

এদের মধ্যে ভারতফেরত মনিমালা, মিলন হোসেন, আমিরুল সানা, সোহেল সরদার, বিবেকানন্দ সরকার, নাসিমা আক্তার ও স্থানীয় ফাতেমা খাতুনকে সোমবার আদালতে সোপর্দ করা হয়।

উল্লখ্য, গত ২৩ ও ২৪ এপ্রিল ভারত থেকে ফিরে আসা সাত করোনা রোগী ও স্থানীয় তিন করোনা রোগী যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের রেডজোন থেকে পালিয়ে যান। এ নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হলে ২৬ এপ্রিল পুলিশ ও স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় এদের বাড়ি থেকে ‘ধরে এনে’ ফের যশোর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অর্থসূচক/কেএসআর