১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

0
186

চলতি বছরের ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে মার্কিন সেনারা আফগানিস্তান ছাড়বেন বলে ঘোষণা দিতে যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। মার্কিন গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনের সঙ্গে তালেবানের স্বাক্ষরিত শান্তিচুক্তি অনুযায়ী ১ মে আফগানিস্তান থেকে বাকি আড়াই হাজার মার্কিন সেনাকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার কথা ছিল।

তবে ক্ষমতায় আসার পর ওই চুক্তি থেকে সরে আসার ইঙ্গিত দিয়েছেন জো বাইডেন। প্রতিক্রিয়ায় চুক্তির বেঁধে দেওয়া সময়সীমা পার হলে বিদেশি সেনাদের ওপর হামলার ঘোষণা দিয়েছিল তালেবান।

অবশ্য ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়ে চুক্তি বাস্তবায়ন নিয়ে তালেবানের দুশ্চিন্তা কিছুটা কমাতে চেয়েছেন বাইডেন। সেনা প্রত্যাহারের নতুন সময়সীমা আর পরিবর্তন হবে না বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন তার প্রশাসনের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

এই কর্মকর্তা বলেন, কঠিন এক নীতি পুনর্মূল্যায়নের পর প্রেসিডেন্ট বাইডেন আফগানিস্তান থেকে বাকি সেনা প্রত্যাহার এবং দেশটিতে যুক্তরাষ্ট্রের ২০ বছরের যুদ্ধ সমাপ্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এদিকে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে বাইডেন প্রশাসনের নতুন সিদ্ধান্তের বিষয়ে এখন পর্যন্ত তালেবানের প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।
বারবার সময়সূচি নির্ধারণ করেও সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বা ডোনাল্ড ট্রাম্পের সময় সব মার্কিন সেনা আফগানিস্তান থেকে প্রত্যাহার করা সম্ভব হয়নি।

মার্কিন সামরিক বিশেষজ্ঞরা মত দেন যে সময়সীমা নির্ধারণ করে নয়, পরিস্থিতি বিবেচনা করেই আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা উচিত।

মার্কিন সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, নাইন–ইলেভেনের ঘটনার ২০ বছর পূর্তির আগে, অর্থাৎ আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের আগেই আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হবে।

বর্তমান মার্কিন প্রশাসনের একাধিক সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমগুলো বলেছে, প্রেসিডেন্ট বাইডেন স্থানীয় সময় ১৪ এপ্রিল এ–সংক্রান্ত একটি ঘোষণা দিতে পারেন।

সূত্র: বিবিসি, আল-জাজিরা।

অর্থসূচক/কেএসআর