জেএসএসের সামরিক কমান্ডারকে গুলি করে হত্যা

0
165
বিশ্ব চাকমা। ছবি: সংগৃহীত

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় জেএসএস এমএন লারমা দলের সামরিক কমান্ডার বিশ্ব চাকমা ওরফে যুদ্ধ চাকমাকে (৩৫) গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) রাতে সংগঠনটির নিয়ন্ত্রিত এলাকা হিসেবে পরিচিত উপজেলার বাবুপাড়া এলাকায় সশস্ত্র অবস্থায় দায়িত্ব পালনের সময় নিজ দলীয় বন্ধুবেশী গুপ্তচরের গুলিতে তিনি নিহত হন।

বাঘাইছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান ও জনসংহতি সমিতির (এমএনলারমা) কেন্দ্রীয় কমিটির আইন বিষয়ক সম্পাদক সুদর্শন চাকমা জানিয়েছেন, নিহত বিশ্বমিত্র এবং হত্যাকারী সুজন আমাদের কর্মী ছিলেন। কিন্তু সুজন গোপনে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতির সাথে যে আঁতাত করেছিলেন সেটা আমরা জানতাম না। গত রাতে একসাথে থাকাকালে তিনি (সুজন) বিশ্বমিত্র চাকমাকে গুলি করে হত্যা করে পালিয়ে গিয়ে সন্তু লারমার দলে যোগ দিয়েছেন বলে জেনেছি। নিহত বিশ্বমিত্র চাকমা সহযোগী সংগঠন যুব সমিতির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

সংস্কারপন্থী জেএসএস এর দলীয় সূত্রে জানা গেছে, নিহত যুদ্ধ চাকমা বিগত চার বছর আগে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জেএসএস থেকে অস্ত্র নিয়ে পালিয়ে এসে সংস্কারপন্থী জেএসএস এমএন লারমা দলে যোগদান করে। পরবর্তীতে তাকে সংগঠনটির বাবু পাড়া এলাকার সামরিক কমান্ডারের দায়িত্ব দেওয়া হয়। প্রতিদিন রাতে তার নেতৃত্বেই এলাকায় সামরিক টহল দিতো একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী। তারই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার রাতে সশস্ত্র অবস্থায় ডিউটিতে থাকাকালীন সময়ে তার সাথে থাকা ছদ্মবেশী সহকর্মী সুজন চাকমা গভীর রাত আড়াইটার সময় গুলি করে যুদ্ধ চাকমাকে হত্যা করে।

বাঘাইছড়ি থানার ওসি আনোয়ার হোসেন খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, জনসংহতি সমিতির আভ্যন্তরীণ বিরোধে একজন মারা যাওয়ার খবর পেয়ে আমরা লাশ উদ্ধার করি এবং মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছি। এই বিষয়ে নিহতের স্বজনরা মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন। মামলার পর আমরা আমাদের পরবর্তী পদক্ষেপ নেব।

অর্থসূচক/এএইচআর