ঘুরে দাঁড়িয়েছে শ্রীলঙ্কা

0
173

প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৬৯ রানে অল আউট হলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ঘুরে দাঁড়িয়েছে শ্রীলঙ্কা। প্রথম ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের চেয়ে ১০২ রানে পিছিয়ে থাকলেও লাহিরু থিরিমান্নে ও ওসাদা ফার্নান্দোর ব্যাটিং দৃঢ়তায় ১৫৩ রানের লিড নিয়েছে লঙ্কানরা। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে ম্যাচে ফেরার দিনে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেটে ২৫৫ রান।

এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের চেয়ে ১০২ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা। দলীয় মাত্র ৮ রানেই সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে। কেমার রোচের বলে ফেরার আগে তিনি করেছিলেন মাত্র ৩ রান। এরপর ফার্নান্দোকে নিয়ে শুরুর বিপর্যয় সামাল দেন থিরিমান্নে। এই দুজনে মিলে গড়েন ১৬২ রানের অনবদ্য জুটি।
থিরিমান্নের চেয়ে কিছুটা আক্রমণাত্বক মেজাজে ব্যাট করছিলেন ফার্নান্দো। এদিন হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিলেও শেষ পর্যন্ত সেঞ্চুরি করতে না পারায় আক্ষেপে পুড়তে হয়েছে তাঁকে। ১৪৯ বলে ৯১ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে সাজঘরে ফেরেন তিনি। কাইল মায়ার্সের বলে আউট হওয়ার আগে ১১টি চার মেরেছিলেন তিনি। এদিন থিতু হতে পারেননি দিনেশ চান্দিমাল। মাত্র ৪ রান করা ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানকেও ফেরান মায়ার্স। দারুণ ব্যাটিং করতে থাকা থিরিমান্নে হাফ সেঞ্চুরি করলেও ইনিংস বড় করতে পারেননি। ২০১ বলে ৭৬ রান করে রোচের বলে বোল্ড আউট হন তিনি। ইনিংসটি খেলতে মাত্র ৪টি চার মেরেছেন তিনি।

এরপর তৃতীয় দিনের শেষ বিকেলে আর কোনো উইকেট হারাতে দেননি ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা ও পাথুম নিশাঙ্কা। ধনাঞ্জয়া ৪৬ রানে আর পাথুম ২১ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেছেন। ক্যারিবীয়দের হয়ে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন রোচ ও মায়ার্স।

এর আগে তৃতীয় দিনের শুরুতে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৩ রান যোগ করে অল আউট হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দ্বিতীয় দিন শেষে ৬০ রানে অপরাজিত থাকা রাকিম কর্নওয়াল এদিন মাত্র ১ রান যোগ করেই সাজঘরে ফেরেন। শ্যানন গ্যাব্রিয়েল কোনো রান না করে ফিরলে ক্যারিবীয়রা থামে ২৭১ রানে।

 

অর্থসূচক/এএইচআর