এমপির গাড়িকে সাইড না দেয়ায় ট্রাকচালককে মারধর, মহাসড়ক অবরোধ

প্রতিনিধি

0
203

পরিবহন শ্রমিকদের অবরোধে অচল হয়ে পড়েছে ময়মনসিংহ-নেত্রকোনা মহাসড়ক। নেত্রকোনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য ওয়ারেসাত হোসেন বেলালের গাড়িকে সাইড না দেওয়ায় এক ট্রাকচালককে মারধরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে অবরোধ করেন শ্রমিকরা। তবে নেত্রকোনা জেলা প্রশাসন ও ময়মনসিংহ জেলার শ্রমিক নেতাদের আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে দীর্ঘ ১৫ ঘণ্টা পর অবরোধ তুলে নিয়েছেন শ্রমিকরা।

আজ শনিবার (১৩ মার্চ) দুপুর ২টায় অবরোধ তুললেও ময়মনসিংহের তারাকান্দার গাছতলা বাজার থেকে নেত্রকোনার শ্যামগঞ্জ বাজার পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার জুড়ে যানবাহনের দীর্ঘ সারি দেখা গেছে।

এর আগে, নেত্রকোনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য ওয়ারেসাত হোসেন বেলালের গাড়িকে সাইড না দেওয়ায় এক ট্রাকচালককে মারধরের প্রতিবাদে ময়মনিসংহের তারাকান্দার কাশিগঞ্জ এলাকায় ময়মনসিংহ-নেত্রকোনা সড়ক অবরোধ করেন বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। এতে শুক্রবার (১২ মার্চ) রাত ১১টা থেকে শনিবার (১৩ মার্চ) দুপুর ২টা পর্যন্ত সড়কে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ময়মনসিংহের বিরিশিরি সড়কের পূর্বধলা উপজেলার ধলামূলগাঁও ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের একটি কর্মী সমাবেশে অংশ নিতে যাচ্ছিলেন নেত্রকোনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য। এ সময় সড়কের পূর্বধলা এলাকায় এমপির গাড়িকে সাইড না দিয়ে একটি ট্রাক চলে যায়।

এ ঘটনায় এমপির লোকজনের বিরুদ্ধে ওই ট্রাকের চালককে মারধরের অভিযোগ উঠে। পরে ট্রাকটি আটক করে শ্যামগঞ্জ পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে রাখা হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদে শুক্রবার রাত ১১টা থেকে শনিবার দুপুর ২টা পর্যন্ত ময়মনসিংহ-নেত্রকোনা সড়কের কাশিগঞ্জ এলাকায় সড়ক অবরোধ করে রাখেন বিক্ষুব্ধ পরিবহন শ্রমিকরা। ময়মনসিংহের পরিবহন নেতাদের সঙ্গে আলোচনার পর জেলা প্রশাসনের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেয় শ্রমিকরা।

তারাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের বলেন, তীব্র যানজট সৃষ্টি হওয়ায় যান চলাচল স্বাভাবিক করতে কিছুটা সময় লাগছে। তবে আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

অর্থসূচক/কেএসআর