এক মুখে দুই কথা বলছেন দিঘী

শিশুশিল্পী থেকে নায়িকা হিসেবে নাম লিখিয়ে বেশ জটিলতায় পড়লেন প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। গেলো বছরের শেষদিকে দীঘি ৬টি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য চূড়ান্ত হন। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়া ও সেসব ছবির পরিচালকের সূত্রে বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে।

দীঘি নিজেও বিভিন্ন গণমাধ্যমে বলেছিলেন, ‘দুইটি ছবি আগেই চূড়ান্ত ছিল। এরপর আরো তিনটি ছবি চূড়ান্ত হয়েছে। একসঙ্গে ৫ ছবিতে সুযোগ পাবো আগে ভাবিনি। এখন ছবিগুলোর জন্য নিজেকে প্রস্তুত করছি। সবগুলোতে ভালো করার চেষ্টা করবো।’

কদিন আগেই ওই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা গেছে, তারা আর দীঘিকে নিয়ে ছবি বানাচ্ছেন না। সরাসরি কিছু না বললেও আকারে ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিয়েছেন।

এদিকে দীঘির ছবি থেকে বাদ পড়ার খবর প্রকাশ হলে তিনি বলছেন ভিন্ন কথা।

সংবাদমাধ্যমে দীঘি জানান, মূলত একটি ছবি নিয়ে শাপলা মিডিয়ার সঙ্গে আমার চুক্তি হয়েছে। বাকিগুলো মুখে মুখে। বাদ দিতে হলে তো আগে নিতে হবে। না নিয়ে কীভাবে বাদ দেয়? বাকি সিনেমাগুলোর ব্যাপারে কোনো চুক্তি হয়নি। শুনেছি ছবিগুলোই হবে না, তাহলে বাদের কথা কেন আসছে?

বর্তমানে দীঘির হাতে একটি ছবির কাজ রয়েছে। এর আগে শাপলা মিডিয়া প্রযোজিত ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ ছবির কাজ শেষে করেন তিনি। এছাড়া ‘তুমি আছ-তুমি নেই’ ছবির কাজ শেষ করছেন তিনি।

দীঘির এক মুখে দুই রকম কথা নিয়ে এফডিসিতে নানা গুঞ্জন চাউর হয়েছে।

অর্থসূচক/এএ/এমএস

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...