অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে সহয়োগিতা চাইলেন শি

0
160

চার বছর পর আবারও দাভোস বৈঠকে ভাষণ দিলেন শি জিনপিং। করোনার কারণে এবার ওয়ার্ল্ড ইকনমিক ফোরামের বৈঠক ভার্চুয়াল হচ্ছে। সাতদিনের এই বৈঠকে শি জিনপিং হলেন অন্যতম প্রধান বক্তা। চীনের প্রেসিডেন্ট বলেন, করোনার পর বিশ্বের অনেক দেশের অর্থনীতি নড়বড়ে হয়ে গেছে। এনিয়ে অনেকের দৃষ্টিভঙ্গিও স্পষ্ট নয়। সকলের সহযোগিতায় বিশ্ব অর্থনীতিকে চাঙ্গা করা সম্ভব।

শি বলেছেন, ‘নিজেদের ছোট গোষ্ঠী তৈরি করলে, নতুন ঠান্ডা যুদ্ধ শুরু করলে, অন্যদের ভয় দেখালে, হুমকি দিলে বা অন্যদের কথা খারিজ করে দিলে, বিশ্বে বিভাজন বাড়বে।’ চীনের প্রেসিডেন্ট কাকে লক্ষ্য করে বার্তা দিতে চেয়েছেন, সেটাও পরিস্কার। গত চার বছর ধরে আমেরিকার সঙ্গে চীনের সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকেছে। ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট থাকার সময় বারবার নানা বিষয়ে হুমকি দিয়েছেন। বাইডেন এখন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নিয়েছেন। সেই সময় এই বার্তা দিলেন জিনপিং।

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস তাঁর ভাষণে সকলকে সাবধান করে দিয়ে বলেছেন, বিশ্ব যে শুধু করোনা ও আর্থিক সংকটের মুখে পড়েছে তাই নয়, জলবায়ু পরিবর্তন ও জীববৈচিত্রের ক্ষেত্রে অস্তিত্ব সংকট দেখা দিয়েছে। তার উপর ভূরাজনৈতিক বিভাজন বেড়েছে এবং পরমাণু ও রাসায়নিক নিরস্ত্রীকরণ নিয়েও সমস্যা দেখা দিয়েছে।

গুতেরেস বলেছেন, ২০২১ সালে বিশ্বকে এই সব সমস্যার সমাধান করতে হবে। আমরা চাই, বাণিজ্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করুক। কিন্তু দেশগুলো যেন জয়বায়ু পরিবর্তন ও সেই কারণে বিপর্যয়ের কথা মনে রাখে। আমাদের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করার জন্য কাজ করতে হবে। সূত্র: এপি, রয়টার্স, এএফপি

 

অর্থসূচক/এএইচআর