কমেছে চাল ও তেলের দাম, বেড়েছে মুরগির

0
383

শীতের সবজিতে কাচাবাজারে স্বস্তির পর এবার কমেছে চাল, পাম অয়েল ও খোলা ভোজ্যতেলের দাম। গত সপ্তাহের তুলনায় রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে তেলের দাম কেজিতে ১০ টাকা পর্যন্ত কমেছে। তবে বেড়েছে বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম।

রাজধানীর কাওরান বাজার, মালিবাবাগ, শান্তিবাগ কাঁচা বাজারসহ কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা যায়, বাজারে খোলা সয়াবিন তেলের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১২০-১২৫ টাকায়, যা গত সপ্তাহে ছিল ১৩০-১৩৫ টাকা। পাম অয়েল বিক্রি হচ্ছে ১১০-১১৫ টাকায়, যা গত সপ্তাহে ছিল ১১৫-১২০ টাকা। তবে এক লিটার ওজনের বোতলজাত সয়াবিনের দাম বেড়েছে। আগের সপ্তাহে এক লিটার ওজনের সয়াবিন বোতল ১২০ টাকায় বিক্রি হলেও বর্তমানে সেই বোতলের দাম রাখা হচ্ছে ১৩০ টাকা। খুচরা পর্যায়ে বোতল পাঁচ লিটার সয়াবিন তেল ৫৬০-৬০০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহেও এই সয়াবিন একই দামে বিক্রি হয়েছিল।

মালিবাগ কাচাবাজারের মুদি দোকানি শাহীন বলেন, এক লিটার সয়াবিন তেলের গায়ের দাম দেওয়া আছে ১২৫ টাকা, এর কোনোটা ১৩০ টাকা। বিক্রি করছি গায়ের লেখা খুচরা মূল্য অনুযায়ী। তবে কিছু মুদি দোকানে এখনও প্রতি লিটার ১২০ টাকা এমআরপির বসুন্ধরা ও তীর ব্র্যান্ডের সয়াবিন তেলের বোতল পাওয়া যাচ্ছে। বোতলজাত তেলের দাম আরও বাড়তে পারে বলে পরিবেশকরা আভাস দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মুদি দোকানি শাহীন।

সরকারি বিপণন সংস্থা টিসিবি’র হিসাবে গত এক মাসে সব ধরনের পাম ও সয়াবিনের দাম বেড়েছে। এর মধ্যে এক লিটার বোতলজাত সয়াবিনের দাম বেড়েছে ১২ শতাংশ। খোলা সয়াবিনের দাম বেড়েছে প্রায় ৯ শতাংশ।

চাল ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, চিকন, মোটা ও মাঝারি এই তিন ধরনের চালের দামই কমেছে। গত সপ্তাহের তুলনায় মোটা চালের দাম কমেছে কেজিতে ২ করে। এছাড়া চিকন ও মাঝারি চালের দাম কেজিতে কমেছে ১ টাকা করে। খুচরা ব্যবসায়ীরা মোটা চাল বিক্রি করছেন ৪৩-৪৮ টাকা। এক সপ্তাহ আগে এই চাল ৪৫-৪৮ টাকায় বিক্রি হয়েছে। চিকন চাল বিক্রি হচ্ছে ৫৫-৬৫ টাকা কেজি। মাঝারি চাল বিক্রি হচ্ছে ৫০-৫৫ টাকায়।

এদিকে শীতের সবজির সরবরাহ ভালো। সবজির পাশাপাশি স্বস্তি দিচ্ছে আলু ও পেঁয়াজের দাম। টিসিবির তথ্য অনুযায়ী, গত এক মাসে আলুর দাম কমেছে ৪৮ শতাংশ। পেঁয়াজের দাম কমেছে ৩৯ শতাংশ। রসুনের দাম কমেছে ১৫ শতাংশ। ভালো মানের নতুন আলুর কেজি ২০ টাকার মধ্যে। ৪০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে দেশি পেঁয়াজের কেজি। ২০ টাকা কেজি পাওয়া যাচ্ছে আমদানী করা পেঁয়াজ।

অবশ্য দাম বাড়ার তালিকায় রয়েছে ব্রয়লার মুরগি। গত এক ব্যবধানে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগির দাম বেড়েছে ৫ টাকা। ১২৫ টাকা কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকা দরে। ভালো মানের পাকা টমেটোর কেজি বিক্রি করছেন ২০-৩০ টাকা, শিম ২০-৪০ টাকা কেজি দরে। ফুলকপি ও বাঁধাকপির পিস বিক্রি হচ্ছে ১০-২০ টাকা। এছাড়া মুলা ১০-১৫ টাকা, গাজর ৩০-৫০ টাকা, বেগুন ২০-৩০ টাকা, উচ্ছে ৩০-৪০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

 

অর্থসূচক/এএইচআর