হামাস প্রধানকে ইরানি প্রেসিডেন্টের চিঠি, যা লিখেছেন

ইরানের নির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে অভিনন্দন জানিয়ে ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের পলিটব্যুরো প্রধান ইসমাইল হানিয়া যে বার্তা পাঠিয়েছিলেন তার লিখিত জবাব দিয়েছেন মাসুদ পেজেশকিয়ান।

চিঠিতে তিনি ফিলিস্তিনি জনগণের অধিকার আদায় ও আশা-আকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়নের পাশাপাশি জেরুজালেম আল-কুদসের মুক্তি পর্যন্ত ফিলিস্তিনি জাতির প্রতি ইরানের সর্বাত্মক সমর্থন ও সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে প্রত্যয় জানিয়েছেন। হামাস নেতাকে ধন্যবাদ জানিয়ে ইরানের নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মাসুদ পেজেশকিয়ান যে চিঠি লিখেছেন তার হুবহু বঙ্গানুবাদ তুলে ধরা হলো:

“বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম
জনাব ইসমাইল হানিয়া, ফিলিস্তিনি ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের সম্মানিত পলিটব্যুরো প্রধান, আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহ। ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় আপনি আমাকে অভিনন্দন জানিয়ে যে আন্তরিক বার্তা পাঠিয়েছেন সেজন্য আপনাকে ধন্যবাদ জানাই।

ফিলিস্তিনি জাতি এবং দখলদার ও বর্ণবাদী ইসরাইল সরকারের বিরুদ্ধে তাদের লড়াইকে সমর্থন করার ব্যাপারে ইসলামি বিপ্লবের সুউচ্চ নীতিমালা ও লক্ষ্য এবং ইমাম খোমেনীর আদর্শ ও সর্বোচ্চ নেতার দিক-নির্দেশনা মেনে চলাকে ইরান তার মানবিক ও ইসলামি কর্তব্য বলে মনে করে। যতক্ষণ পর্যন্ত ফিলিস্তিনি জাতির সমস্ত লক্ষ্য ও অধিকার আদায় এবং পবিত্র জেরুজালেম আল-কুদস শরীফের স্বাধীনতা অর্জন না হয় ততক্ষণ পর্যন্ত ইরান নিপীড়িত ফিলিস্তিনি জাতির প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখবে।

ফিলিস্তিনের প্রতিরোধকামী জাতি এবং নিপীড়িত ও শক্তিশালী গাজাবাসী যে ঐতিহাসিক প্রতিরোধ গড়ে তুলেছে এবং চলমান যুদ্ধে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধের যোদ্ধারা যে বীরত্বপূর্ণ সংগ্রাম করে যাচ্ছেন তার ফলে ফিলিস্তিনি জাতির বিজয় অবশ্যম্ভাবী এবং এ যুদ্ধে তারা ঐশী মদদ পাবে বলে আমি নিশ্চিত বিশ্বাস করি।

আমি সর্বশক্তিমান আল্লাহর কাছে আপনার জন্য সুস্বাস্থ্য, ফিলিস্তিনি জনগণের জন্য সম্মান, প্রতিরোধকামী বীর মুজাহিদদের জন্য গৌরব, স্বাধীনতা ও ঐশী মদদ এবং ফিলিস্তিনের মর্যাদাবান শহীদদের জন্য আল্লাহ তায়ালার রহমত কামনা করছি।” পার্সটুডে

অর্থসূচক/এএইচআর

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.