গাজার স্কুলে হামলা, আবারও মুখ খুললেন মালালা

একের পর এক গাজার স্কুলে ইসরাইলি হামলা। এবার আরেকটি স্কুলে হামলা পর পাকিস্তানের নোবেল বিজয়ী অধিকারকর্মী মালালা ইউসুফজাই আবারও গাজায় যুদ্ধবিরতির দাবি জানিয়েছেন।

সোমবার (৮ জুলাই) ফিলিস্তিনি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, জাতিসংঘ পরিচালিত একটি স্কুলে ইসরায়েলি বিমান হামলায় প্রায় ১৬ জন নিহত এবং বহু শিশু ও সাধারণ মানুষ আহত হয়েছেন।

এর পরই বিষয়টি নিয়ে ইউসুফজাই এক্স এ একটি পোস্ট করেন। যেখানে তিনি বলেন, ‘গাজার আরও একটি স্কুলে ইসরাইল হামলা চালিয়েছে যা দেখে আমি বিধ্বস্ত। আমরা আন্তর্জাতিক মানবিক আইন লঙ্ঘনের জন্য অসাড় হয়ে উঠতে পারি না এবং নিরপরাধ মানুষের ক্ষতি থেকে দূরে থাকতে পারি না’।খবর জিও টিভি।

পোস্টে একটি দীর্ঘস্থায়ী যুদ্ধবিরতির জন্য জরুরি আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করেন মালালা।

বিবিসি বলছে, অন্তত সাত হাজার উদ্বাস্তু ভবনটি আশ্রয়স্থল হিসেবে ব্যবহার করত। বার্তাসংস্থা এএফপিকে এক নারী ইসরায়েলি হামলায় সেখানকার শিশুরা কীভাবে নিহত হয়েছে তার বর্ণনা দিয়েছেন।

তিনি বলেন, শিশুরা কোরআন পড়ছিলেন, সেইসময় হামলা চালানো হয়। এ নিয়ে কোনো ধরনের সতর্ক ছাড়াই স্কুলটিতে চারবার হামলা চালানো হলো বলে জানান এই নারী।

গত বছরের অক্টোবর থেকে ইসরাইল ও হামাসের মধ্যে যুদ্ধ চলছে। এতে এখন পর্যন্ত গাজায় নিহতের সংখ্যা ৩৮ হাজার ছাড়িয়েছে। আহত হয়েছে ৯০ হাজারের বেশি।

অর্থসূচক/ এইচএআই

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.