প্রতি বছর এমিরেটসে ভ্রমণ করে ১০ লাখের বেশি শিশু

ফ্যামিলি বান্ধব এয়ারলাইন হিসেবে পরিচিত এমিরেটস। এই এয়ারলাইনে বিশ্বব্যাপী দশ লাখেরও বেশি শিশু তাদের পরিবারের সঙ্গে ভ্রমণ করে থাকে। আর পরিবারগুলোর সদস্যদের অতিরিক্ত অনেক সেবা অফার করে থাকে এয়ারলাইনটি।

এয়ারলাইনটির তথ্য মতে, ৬ জুলাই থেকে বিশাল সংখ্যক পরিবার এমিরেটসে ভ্রমণ করবে। তাদের জন্য বিমানবন্দর এবং ফ্লাইটে যেসকল সেবা রয়েছে, তার একটি ফিরিস্তি প্রকাশ করেছে এয়ারলাইনটি।

দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তিন নম্বর টার্মিনালে ২৮ জুলাই পর্যন্ত প্রতি শুক্র, শনি ও রবিবার দুপুর ১২টা থেকে বিকাল ৬টা পর্যন্ত পরিবারের সকল সদস্যকে বিভিন্ন ফ্লেভারের আইসক্রীম দিয়ে আপ্যায়ন করা হবে। এমিরেটসের বিশেষ আইসক্রীম কার্ট থেকে বিনামূল্যে পছন্দের আইসক্রীম নিতে পারবেন পরিবারের সদস্যরা।

ছোট শিশুদের জন্য বিমানবন্দরে বিনামূল্যে বেবি স্ট্রলার সেবা দেয়া হবে। বিনামূল্যে দুবাই ট্যাক্সি হিসেবে পরিচিত এয়ারপোর্ট বাগি সেবা সকলের জন্য প্রযোজ্য হলেও শিশুসহ ভ্রমণকারী পরিবারগুলো অগ্রাধিকার পেয়ে থাকে। দুবাই বিমানবন্দরের কনকোর্স এ এবং বি’তে অবস্থিত প্রথম ও বিজনেস শ্রেণীর লাউঞ্জে শিশুদের জন্য আলাদা গেইম জোনের ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়াও আলাদা মা ও শিশু সেবা কক্ষ, ফিডিং এরিয়া ও চেঞ্জিং এরিয়ার সুবিধা নিতে পারেন ভ্রমণকারী পরিবারগুলো। শিশুদের জন্য আলাদা বাথরুমেরও ব্যবস্থা রয়েছে। একাকী ভ্রমণকারী ৫ থেকে ১১ বছরের শিশুদের সঙ্গ দিয়ে থাকেন এমিরেটসের বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত গ্রাউন্ড স্টাফ ও অনবোর্ড ক্রু। বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের ভ্রমণে বিশেষ সহায়তা প্রদান করে এয়ারলাইনটি।

এমিরেটসের প্রায় প্রতিটি ফ্লাইটের সকল শ্রেণীতে শিশুদের উপযোগী সুস্বাদু ও পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবারের বিশেষ ব্যবস্থা থাকে। প্রয়োজনে অভিভাবকরা এমিরেটস প্রদত্ত বেবি ফুড, মিল্ক ফর্মুলা, বেব বটল ইত্যাদি নিতে পারেন। প্রতিটি শিশুকে ফ্লাইটে বিশেষ এমিনিটি কিট সরবরাহ করা হয়ে থাকে, যার মধ্যে রয়েছে ডায়াপার, বীব, লোশন এবং চেঞ্জিং ম্যাট। অধিকাংশ এমিরেটস ফ্লাইটে বাথরুমে বেবি চেঞ্জিং টেবিলের ব্যবস্থা রয়েছে। দুই বছরের নিচে শিশুদের জন্য নিরাপদ ও আরামদায়ক বেসিনেটসহ আসন বুক করার সুবিধা রয়েছে। অভিভাবকরা ইচ্ছা করলে পূর্ব অনুমোদিত কার সীটও নিয়ে আসতে পারেন।

এমিরেটসের ইনফ্লাইট বিনোদন ব্যবস্থায় শিশুদের জন্য আলাদা মুভি এবং শতাধীক ভিডিও গেমের ব্যবস্থা রয়েছে। ফ্লাইটে সকল বয়সের শিশুদের বয়স ভিত্তিক বিভিন্ন ধরণের খেলনা দেয়া হয়ে থাকে। ভ্রমণকে স্মরণীয় করে রাখতে কেবিন ক্রুরা পোলারয়েড ক্যামেরায় শিশুদের বিশেষ মূহুর্তগুলো ধারণ করেন, যা পরবর্তীতে বিশেষ ফ্রেমে উপহার হিসেবে তাদের প্রদান করা হয়।

সকল শ্রেণীতে ভ্রমণকারী শিশুরা ফ্রি ওয়াইফাই মেসেজিং সুবিধা পেয়ে থাকে। ২ থেকে ১৭ বছরের শিশুদের জন্য আলাদা লয়্যালটি প্রোগ্রাম এমিরেটস স্কাইসার্ফারে শিশুরা স্কাইওয়ার্ড মাইল বা পয়েন্ট অর্জনের সুবিধা পেয়ে থাকে, যা পরবর্তীতে ব্যবহার করে বিভিন্ন সুবিধা গ্রহণ করতে পারে।

এমিরেটস বর্তমানে ঢাকায় সপ্তাহে ২১টি ফ্লাইট পরিচালনা করছে এবং যাত্রীরা ভায়া দুবাই বিশ্বের প্রায় ১৪০টি গন্তব্যে সুবিধাজনক সংযোগ পাচ্ছেন। একমাত্র এয়ারলাইন হিসেবে এমিরেটস বাংলাদেশে ‘প্রথম শ্রেণী’ সেবা অফার করে।

 

অর্থসূচক/

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.