বিশ্বকাপ জয়ে নিরবতা ভাঙলেন ধোনি

২০০৭ সালে এই মহেন্দ্র সিং ধোনির হাত ধরেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জিতেছিল ভারত। এরপর ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপ ও ২০১৩ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপাও ঘরে তোলে ভারত। এর পেছনেও মূল কারিগর ছিলেন ধোনি। এই উইকেট রক্ষক ব্যাটারের বিদায়ের পর খুব কাছে গিয়েও একের পর এক হারে শিরোপা যেন ছোয়া হচ্ছিল না ভারতের। অবশেষে ২০২৪ সালে এসে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়ার খরা কাটাল ভারত। রোহিত শর্মার চৌকশ অধিনায়কত্বে অপরাজিত থেকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতল ভারত। এর মধ্যে দিয়ে ভাঙল ধোনির নিরবতাও।

ভারতের শিরোপা জয়ে ৫১ সপ্তাহের নিরবতা ভেঙ্গে আবারও ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছেন ধোনি। রোহিতদের অভিনন্দন জানানোর সঙ্গে জানিয়েছেন নিজের অনুভূতির কথাও। ইনস্টাগ্রামে ধোনি লিখেন, ‘বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ২০২৪। আমার হৃৎস্পন্দন বেড়ে গিয়েছিল। শান্ত থেকে, বিশ্বাস ধরে রেখে তোমরা যা করেছ, সাবাস। দেশের সব দর্শক, সারা দুনিয়ায় থাকা সব ভারতীয়দের পক্ষ থেকে বিশ্বকাপ ঘরে নিয়ে আসার জন্য অনেক ধন্যবাদ। অভিনন্দন। জন্মদিনের অমূল্য উপহারের জন্য ধন্যবাদ।’

২৯ জুন কোনোভাবেই ধোনির জন্মদিন নয়। এই উইকেটরক্ষক ব্যাটারের জন্মদিন আগামী ৭ জুলাই। জন্মদিনের আগেই ভারতের বিশ্বকাপ জয়টি নিজের জন্মদিনের উপহার হিসেবে নিচ্ছেন তিনি। এজন্য রোহিতদের জন্য একটু বেশি ভালোবাসা উজাড় করে দিলেন ধোনি। ২০১৩ সালের পর আইসিসির ইভেন্ট গুলোতে সম্ভাবনা জাগিয়েও পারেনি ভারত। ২০১৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে শ্রীলঙ্কার কাছে হারে দলটি। ২০১৫ ওয়ানডে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালেও অস্ট্রেলিয়ার কাছে হারে দলটি।

২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ভারত হারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। সেই সময় পর্যন্ত ভারতের অধিনায়ক ছিলেন ধোনি। তারপর ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন ভারত হারে পাকিস্তানের বিপক্ষে। ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে দলটি হারে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সেভাবে কিছুই করতে পারেনি ভারত। এরপর রোহিত শর্মার নেতৃত্বে ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হারে ভারত।

ঘরের মাঠে ২০২৩ বিশ্বকাপ পরাজয়ের গ্লানিও সহ্য করতে হয় রোহিতের ভারতকে। সীমিত ওভারে ব্যর্থতার পাশাপাশি ২০২১ এবং ২০২৩ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে যথাক্রমে নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হারে ভারত। এবার যেন সকল অপূর্ণতাই ঘুচিয়ে দিলো দলটি।

অথসূচক/এএইচআর

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.