সবার পাশে আমরা ফাউন্ডেশনের আয়োজনে কুরবানির গোশত বিতরণ

ঈদ-উল আযহা মুসলমানদের জন্য এমন একটি উৎসব যেখানে সমগ্র মুসলিম উম্মাহ একত্রিত হয় মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের জন্য। এ দিনটিতে সামর্থ্যবান ব্যক্তির দেয়া পশু কুরবানীর গোশত গরিব ও সুবিধাবঞ্চিত উম্মাহর মধ্যে বিতরন করা হয়।

সবার পাশে আমরা ফাউন্ডেশন প্রতি বছর ন্যায় এবছরও ঢাকায় প্রায় ১৩০ টি দরিদ্র এবং নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষের কাছে কুরবানীর গোশত পৌঁছে দিয়েছে। এছাড়া যারা কারো কাছে লজ্জায় কুরবানীর গোশত চাইতে পারে না তাদের কাছেও গোশত পৌঁছে দিয়েছে এ ফাউন্ডেশনটি।

এই আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য হল কুরবানীর দিনটি এসকল মানুষেরা গোশত খাওয়া উপভোগ করতে পারে ।

সবার পাশে আমরা ফাউন্ডেশনের প্রধান মোহাম্মদ শফিকুল আশরাফ তুহিন বলেন, কুরবানীর উদ্দেশ্য হল ত্যাগের মাধ্যমে আল্লাহ্‌র সন্তুষ্টি অর্জন আর তাই বিগত কয়েক বছর ধরে কুরবানীর গোশত বিতরণ করছি দরিদ্র ও অসহায় পরিবারদের মাঝে। এই কাজ করতে যেয়ে দেখেছি এসকল মানুষের চোখে মুখে গোশত খেতে পারার তৃপ্তির আমেজ।

তিনি আরও বলেন, এমনও অনেক পরিবার আছে যারা সম্মানের ভয়ে লজ্জায় কারো কাছে গোশত চাইতে পারে না, আমরা আলহাদুলিল্লাহ গোপনীয়তার সাথে তাদের বাড়িতে গোশত পৌঁছে দেয়া ব্যবস্থা করেছি।

উল্লেখ, সবার পাশে আমরা ফাউন্ডেশনটি ২০০৮ সালে যাত্রা শুরু করে। প্রধান উদ্যোক্তাদের মধ্যে রয়েছে- মুহাম্মদ শফিকুল আশরাফ তুহিন, মো:আবুল বাহার ফারাহ্, জাহিদ হাসান অনিক,মুহাম্মদ তৌকির আহম্মদ, কাউসার আহম্মদ হুমায়ুন, মেহেদী হাসান লিয়ন, শামীমা আক্তার নিম্মি এবং প্রয়াত আফরার মেহেজাবিন খান রাথী।

ফাউন্ডেশনটি বন্ধুবান্ধব ও আত্মীয় স্বজনদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে থাকে। এটি প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই পবিত্র ঈদুল ফিতরে এমন পরিবারগুলোতে ঈদের বাজার দেয়া হয়, ২০১৭ সাল থেকে ঈদে গরু কুরবানি করে এর গোস্ত বিতরন করা হচ্ছে।

অর্থসূচক/

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.