মারা গেছেন রামোজি ফিল্ম সিটির প্রতিষ্ঠাতা

বিশ্বের বৃহত্তম সিনেমা সেট রামোজি ফিল্ম সিটি এবং তেলেগু ভাষার টিভি নেটওয়ার্ক ইটিভি নেটওয়ার্কের প্রতিষ্ঠাতা রামোজি রাও মারা গেছেন। শনিবার (০৮ জুন) ভোরে ভারতের হায়দ্রাবাদের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার মৃত্যু হয়। এই গুণী ব্যক্তির মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, বেশ কয়েকদিন আগে থেকেই একাধিক স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছিলেন রামোজি। শুক্রবার বিকেলে উচ্চ রক্তচাপ ও শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে রামোজিকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল। সেখানেই চলছিল তার চিকিৎসা। এক পর্যায়ে রামোজির শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে শনিবার ভোর পৌনে পাঁচটার দিকে তার মৃত্যু হয়।

সূত্র মতে, রামোজি রাওয়ের মৃতদেহ তার বাসভবন, রামোজি ফিল্ম সিটিতে নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি চলছে। সেখানে পরিবার-পরিজন থেকে আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধুবান্ধব রামোজিকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত থাকবেন।

রামোজির মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

রামোজির মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে নরেন্দ্র মোদি লিখেছেন, ‘শ্রী রামোজি রাওয়ের মৃত্যু অত্যন্ত দুঃখজনক খবর। তিনি ছিলেন একজন দূরদর্শীসম্পন্ন ব্যক্তিত্ব, যিনি ভারতীয় গণমাধ্যমে বিপ্লব ঘটিয়েছিলেন। তার সমৃদ্ধ অবদান সাংবাদিকতা এবং চলচ্চিত্র জগতে একটি চিরস্থায়ী ছাপ রেখে গিয়েছে।’

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি লিখেছেন, ‘রামোজি রাওয়ের মৃত্যুতে শোকাহত। রামোজি রাওয়ের তেলুগু এবং সমস্ত আঞ্চলিক সাংস্কৃতিক সম্পর্কের নিশান বয়ে নিয়ে গিয়েছেন। তাকে নিয়ে আমার ব্যক্তিগত স্মৃতি রয়েছে। আমি তার পরিবার, বন্ধুবান্ধব এবং অনুগামীদের প্রতি আমার আন্তরিক সমবেদনা জানাই।’

একাধারে রামোজি রাও ছিলেন খ্যাতনামা ভারতীয় চলচ্চিত্র প্রযোজক এবং প্রযোজনা সংস্থা উষাকিরণ মুভিজের প্রধান। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং দুটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিতেছিলেন তিনি।

 

অর্থসূচক/

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.