ভারত সফর করবেন টেসলার প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্ক

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় শতকোটিপতি এবং বৈদ্যুতিক গাড়ি প্রস্তুতকারক টেসলার প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইলন মাস্ক তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম তথা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে (সাবেক টুইটার) ভারত সফরের ঘোষণা দিয়েছেন। মূলত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দেখা করতেই তিনি এই সফরে যাবেন।

মাস্ক অবশ্য এই সফরের দিন–তারিখ উল্লেখ করেননি। তবে তিনি ভারতে বড় ধরনের বিনিয়োগ পরিকল্পনা ঘোষণা করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্সে গত বুধবার মাস্ক একটি পোস্টে লিখেছেন, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য উন্মুখ হয়ে আছি!’

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার গত মাসে বৈশ্বিক গাড়ি নির্মাতাদের জন্য বৈদ্যুতিক গাড়ির (ইভি) আমদানি শুল্ক কমিয়েছে। যাঁরা অন্তত ৫০০ মিলিয়ন বা ৫০ কোটি মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ অর্থ বিনিয়োগ করতে চান এবং তিন বছরের মধ্যে ভারতে স্থাপিত কারখানায় গাড়ি উৎপাদন শুরু করার অঙ্গীকার করবেন, তাঁরাই কেবল করছাড়ের এই সুযোগ পাবেন।

এর আগে ২০২১ সালে টেসলার বস ইলন মাস্ক বলেছিলেন যে ভারতের উচ্চহারে আমদানি শুল্ক আরোপের কারণে বিশ্বের দ্রুততম বর্ধনশীল এই অর্থনীতিতে তাঁর কোম্পানি টেসলার বৈদ্যুতিক গাড়ির প্রচলন বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে।

ইলন মাস্ক শুধু টেসলার প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাই (সিইও) নন, তিনি মহাকাশযান প্রস্তুতকারক, উৎক্ষেপণ পরিষেবা প্রদানকারী ও স্যাটেলাইট যোগাযোগ প্রতিষ্ঠান স্পেস এক্সপ্লোরেশন টেকনোলজিস করপোরেশনের (যা স্পেসএক্স নামে সমধিক পরিচিত) চিফ টেকনোলজি অফিসার (সিটিও) এবং প্রতিরক্ষা ঠিকাদারও।

যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্বখ্যাত ফোর্বস ম্যাগাজিনে সম্প্রতি প্রকাশিত ২০২৪ সালের বৈশ্বিক বিলিয়নিয়ার বা শতকোটিপতিদের তালিকায় তৃতীয় স্থানে আছেন ইলন মাস্ক। ফোর্বসের তথ্য অনুযায়ী তাঁর সম্পদের নিট মূল্য ১৯ হাজার ২০ কোটি ডলার। অন্যদিকে ব্লুমবার্গের বিলিয়নিয়ার ইনডেক্সে ইলন মাস্কের পতন ঘটেছে। তাঁকে টপকে বিশ্বের তৃতীয় শীর্ষ অতিধনীর অবস্থানে উঠে এসেছেন মেটার (ফেসবুক) মার্ক জাকারবার্গ। গত মাসের শুরুর দিকে ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার্স ইনডেক্সে প্রথম স্থানে ছিলেন টেসলার প্রতিষ্ঠাতা ইলন মাস্ক।

এদিকে ভারতের এক জ্যেষ্ঠ সরকারি কর্মকর্তা আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসিকে জানান, মোদি–মাস্কের বৈঠকটি চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে হওয়ার কথা এবং এটি রাজধানী নয়াদিল্লিতে মোদির সরকারি বাসভবনে অনুষ্ঠিত হবে।

বিবিসি জানায়, মোদি–মাস্ক বৈঠকে প্রধানত ভারতে টেসলা কোম্পানির বৈদ্যুতিক গাড়ি উত্পাদন শুরু করার পরিকল্পনা নিয়েই আলোচনা হবে। এ নিয়ে বিবিসি যোগাযোগ করলেও টেসলার পক্ষ থেকে তাৎক্ষিণকভাবে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের পরিস্থিতিতেই ইলন মাস্ক এ সফর করছেন। ভারতে ছয় সপ্তাহব্যাপী লোকসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হবে ১৯ এপ্রিল। নরেন্দ্র মোদির হিন্দু জাতীয়তাবাদী দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) এবার তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতায় আসার চেষ্টায় আছে। ফলে নির্বাচনের সময় টেসলার বিনিয়োগের ঘোষণা নরেন্দ্র মোদির ব্যবসাবান্ধব উদ্যোগকে আরও জোরালো করবে বলে আশা করা হচ্ছে। তিনি বিভিন্ন বিদেশি কোম্পানিকে ভারতে উত্পাদন কার্যক্রম শুরু ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির বিষয়ে আহ্বান জানিয়ে আসছেন।

এর আগে গত বছরের জুনে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে ইলন মাস্ক দেখা করেছিলেন। তখন বৈশ্বিক প্রযুক্তি খাতের মাল্টি বিলিয়নিয়ার শতকোটিপতি মাস্ক বলেছিলেন, ‘মোদি আমাদের ভারতে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন, যা আমরাও করতে চাই।’

অবশ্য ভারতে টেসলার বৈদ্যুতিক গাড়ি উৎপাদনে যাওয়ার পরিকল্পনাটি এমন এক সময়ে নেওয়া হয়েছে, যখন যুক্তরাষ্ট্র ও চীনে কোম্পানিটির গাড়ি বিক্রি কমছে। টেসলার ইউরোপীয় কারখানায় অগ্নিকাণ্ড, বৈশ্বিক শিপিং তথা জাহাজীকরণে বিঘ্ন ও ক্রমবর্ধমান প্রতিযোগিতার কারণে এ বছরের প্রথম তিন মাসে তাদের গাড়ি সরবরাহ হ্রাস পেয়েছে। বিশেষ করে চীনা কোম্পানি বিওয়াডির মতো প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে তীব্র প্রতিযোগিতায় পড়ে টেসলা তার বৈদ্যুতিক গাড়ির দাম বারবার কমিয়েছে। চলতি বছরে তাদের গাড়ি বিক্রি এক–তৃতীয়াংশ কমেছে।

ভারতের বাজার খুবই সম্ভাবনাময়। দেশটি ২০২২ সালে যুক্তরাষ্ট্রকে হটিয়ে বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম অর্থনীতি হিসেবে আবির্ভূত হয়, যাদের ২০২৩ সালের ডিসেম্বর প্রান্তিকে মোট দেশজ উৎপাদনে (জিডিপি) ৮ দশমিক ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে।

অর্থসূচক/

  
    

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.